১১ ডিসেম্বরের পর অযোধ্যায় রাম মন্দির নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী, দাবি হিন্দু সংগঠনের নেতার

কেন্দ্রের এক বরিষ্ঠ মন্ত্রী জানিয়েছেন, ১১ ডিসেম্বরের পর অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর মন্ত্রিসভা। রবিবার রাম মন্দির নির্মাণের দাবিতে অযোধ্যায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ধর্মসভার মঞ্চ থেকে এমনই দাবি করলেন চিত্রকূটের এক হিন্দু সংগঠনের নেতা স্বামী রামভদ্রাচারিয়া। তাঁর দাবি, গত শুক্রবার তিনি ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেছেন এবং তাঁদের দু’জনের মধ্যে রাম মন্দির নিয়ে কথা হয়েছে। ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তাঁকে ধৈর্য ধরতে বলেছেন বলে দাবি রামভদ্রাচারিয়ার। এই নেতার দাবি, অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ নিয়ে হিন্দুদের ভাবাবেগকে সম্মান জানাতে কেন্দ্র কোনও আইন আনতে চলেছে। স্বামী রামভদ্রাচারিয়া আরও জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে এবিষয়ে কথা হয়েছে আরএসএস প্রধান মোহন ভগবতেরও। তিনিও তাঁকে ধৈর্য ধরার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, সরকার সংসদে আইন আনবে, সকল সাংসদকে এক হয়ে দুই তৃতীয়াংশ গরিষ্ঠতা নিয়ে সেই বিল পাশ করাতে হবে।
সুপ্রিম কোর্টে হিন্দু সংগঠনগুলি আবেদন করেছিল, রাম মন্দির মামলা ও অযোধ্যা জমি বিবাদের শুনানি দ্রুত শেষ করার। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, কোন বেঞ্চে কবে থেকে এই মামলার শুনানি হবে তা জানুয়ারিতে সিদ্ধান্ত হবে। এরপরই আরএসএস, ভিআইচপিসহ একাধিক হিন্দু সংগঠন দাবি করেছে, সুপ্রিম কোর্টকে এড়িয়ে নয়া আইন এনে দ্রুত অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দির স্থাপনের পথ প্রশস্ত করুক কেন্দ্র। এই দাবির মধ্যেই রবিবার অযোধ্যায় বিশাল সমাবেশের আয়োজন করে ভিএইচপি। সব মিলে লোকসভা ভোটের আগে দেশে এখন নয়া ইস্যু হয়ে উঠেছে রাম মন্দির এবং হিন্দুত্ব।

Comments
Loading...