সিবিআই-এর অন্তর্বর্তীকালীন অধিকর্তা নাগেশ্বর রাও মামলা থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন দেশের প্রধান বিচারপতি

এর আগে অলোক ভার্মাকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন কমিটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। এবার সিবিআই অন্তর্বর্তীকালীন অধিকর্তা পদে নাগেশ্বর রাওকে নিয়োগের বিরোধিতা করে দায়ের হওয়া মামলা থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ।
সোমবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জানান, যেহেতু তিনি পরবর্তী সিবিআই অধিকর্তা নিয়োগের কমিটিতে রয়েছেন, তাই নিরপেক্ষতার স্বার্থে এই মামলায় বিচারপতির আসন থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নাগেশ্বর রাওকে সিবিআই-এর অন্তর্বর্তীকালীন অধিকর্তা হিসেবে নিয়োগের মামলায় বিচারপতির আসনে থাকবেন এ কে সিক্রি।
প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৩ শে অক্টোবর তৎকালীন সিবিআই অধিকর্তা অলোক ভার্মাকে ছুটিতে পাঠানোর পরে তাঁর জায়গায় এম নাগেশ্বর রাওকে সিবিআই ডিরেক্টরের ভার দেওয়া হয়। এরপর, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে নিজের পদ ফিরে পেয়েছিলেন অলোক ভার্মা। তার পরদিনই প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি ও বিরোধী নেতার কমিটি অলোক ভার্মাকে ফের সিবিআই অধিকর্তার দায়িত্ব থেকে ছেঁটে দমকল অধিকর্তার ভার দেয়। তখন দ্বিতীয়বারের জন্য সিবিআই-এর অন্তর্বর্তীকালীন অধিকর্তার পদে বসানো হয় এম নাগেশ্বর রাওকে। কিন্তু নাগেশ্বর রাওকে অন্তর্বর্তীকালীন অধিকর্তার পদে বসানোর বিরোধিতা করে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা মামলা দায়ের করে সুপ্রিম কোর্টে। ওই কেসের বিচারপতির আসন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করলেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। আগামী ২৪ শে জানুয়ারি পরবর্তী সিবিআই অধিকর্তা কে হবেন তা নির্ধারনের জন্য নিয়োগ কমিটি মিটিংয়ে বসবে, তাতে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি।

Comments
Loading...