রাসবিহারী জিততে ভরসা ভালবাসার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, আত্মবিশ্বাসী সুব্রত সাহা

অবসরের সময়ে ছিলেন ডেপুটি চিফ অফ আর্মি

শেষ মুহূর্তে রাসবিহারী কেন্দ্রে প্রার্থী দেওয়ার ক্ষেত্রে চমক দিয়েছে বিজেপি। একুশের নির্বাচনে রাসবিহারী বিধানসভা কেন্দ্রে পদ্ম ফুল চিহ্নে ভোটে লড়ছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্ৰাক্তন লেফটেনেন্ট জেনারেল সুব্রত সাহা। চাকরি জীবনে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদ সামলেছেন। অবসরের সময়ে ছিলেন ডেপুটি চিফ অফ আর্মি।

একাধিক সংবেদনশীল জায়গায় দায়িত্বে ছিলেন সুব্রত। শ্রীনগরে চিনার কর্পসের কমান্ডর ছিলেন। মোদী সরকারের মেক ইন ইন্ডিয়া ডিফেন্স প্রোগ্রামের অন্যতম সদস্য।

ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইসারি বোর্ডের (NSAB) দ্বিতীয়বারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সদস্য মনোনীত হন রাসবিহারীর বিজেপি প্রার্থী। শীর্ষপদে থাকাকালীন ভারতীয় সেনাবাহিনীর পরিকাঠামোর উন্নতির ক্ষেত্রে একাধিক কাজ করেছেন তিনি।
রাসবিহারী কেন্দ্রের জন্য এহেন জাঁদরেল সেনা অফিসারেই ভরসা রাখল বিজেপি।

রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শোভনদেব চ্যাটার্জি রাসবিহারী কেন্দ্র থেকে দু’বার বিধায়ক হয়েছেন। এবার তিনি মুখ্যমন্ত্রীর ছেড়ে যাওয়া কেন্দ্র ভবানীপুরের প্রার্থী। রাসবিহারী থেকে ঘাসফুল চিহ্নে লড়ছেন তৃণমূল নেতা দেবাশিষ কুমার। স্থানীয় মানুষের কাছে পরিচিত দেবা দা নামে। সেদিক থেকে বিজেপি প্রার্থীর জন্য কিছুটা নতুন রাসবিহারীর কেন্দ্র।

[আরও পড়ুন- টিকিট না পেয়ে বিজেপিতে ইটাহারের বিদায়ী TMC বিধায়ক অমল আচার্য]

তৃণমূলের গড় হিসেবে পরিচিত রাসবিহারী কেন্দ্রে জয় নিয়ে নিশ্চিত প্রাক্তন আর্মি অফিসার। রাজনীতি তাঁর কাছে নতুন, তার উপর রাসবিহারীর মত কেন্দ্র, লড়াইটা কঠিন হয়ে গেল না? বিজেপি প্রার্থী বললেন, আমি একজন সৈনিক। আমায় যেখানে লড়াই করতে দেওয়া হবে সেখানেই লড়ব। একটু থেমে গলায় আত্মবিশ্বাস এনে বললেন, আমি কিন্তু সারাজীবন লড়াই করেছি জয়ী হওয়ার জন্য।

সিয়াচেন থেকে কার্গিল, কাশ্মীর থেকে উত্তর পূর্ব, দেশের হয়ে লড়েছেন সারা জীবন। অবসরের পরও সেই লড়াই ছেড়ে থাকতে পারলেন না সুব্রত সাহা। কিন্তু এবার লড়াই ভিন্ন ময়দানে। সামনে কঠিন প্রতিপক্ষ। সুব্রত বাবু একইরকম আত্মবিশ্বাসী।

Comments
Loading...