বাংলায় বিজেপির রথযাত্রার অনুমতি দিল না সুপ্রিম কোর্ট। রথযাত্রা হলে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে, রাজ্যের এই দাবিকেই মান্যতা দিল শীর্ষ আদালত।
মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, সভার ব্যাপারে কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু রথযাত্রার জন্য আবার নতুন করে আবেদন করতে হবে বিজেপিকে। ফলে আপাতত পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির রথযাত্রা সম্ভাবনা নেই।
আইন-শৃঙ্খলার কারণ দেখিয়ে বিজেপির রথযাত্রায় বিরোধিতা করেন রাজ্যের তরফের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি। বিজেপির তরফের আইনজীবী মুকুল রোহতগি এর বিরোধিতা করেন। যদিও শেষ পর্যন্ত রাজ্যের যুক্তিকেই মান্যতা দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, রথযাত্রা হলে মিছিলে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হাঁটবেন বিজেপি সমর্থকরা। এর ফলে অশান্তির একটা আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। রথযাত্রার জেরে পূর্বেও অশান্তি বাধার ইতিহাস রয়েছে জানিয়ে সুপ্রিম কোর্ট রথযাত্রার অনুমতি খারিজ করে। তবে রথযাত্রা করার জন্য নতুন করে আবেদন জানাবার সুযোগ খোলা থাকছে বিজেপির কাছে।
বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে বেশ কয়েক মাস ধরে টালবাহানা চলছে। লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রে প্রচার করতে এই রথযাত্রার আয়োজন করতে চেয়েছিল বিজেপি। এই যাত্রা হলে সাম্প্রদায়িক অশান্তি হতে পারে, এই যুক্তিতে রাজ্য সরকার অনুমতি দেয়নি। এর আগে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ স্থগিতাদেশ দেয় রথযাত্রা বা গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রার। রথযাত্রায় তাদের সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে, এই দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টের স্থগিতাদেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য বিজেপি। সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চে মামলা দায়ের করেছিল তারা।
সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ের পর রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্য সরকার প্রথম থেকেই ভয় পেয়েছিল এবং আদালতেও সেটাই বলেছে তারা। তাই রথযাত্রার অনুমতি দেয়নি আদালত।