সাবরীমালা মন্দির ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টের কড়া সমালোচনায় মোহন ভাগবত

সাবরীমালা মন্দিরে ঋতুমতী মহিলাদের প্রবেশাধিকারের রায়ের কড়া সমালোচনা করলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। বৃহস্পতিবার প্রয়াগরাজের বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সভা থেকে মোহন ভাগবত বলেন, কোটি কোটি হিন্দুর ভাবাবেগকে না বুঝে সাবরীমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকার দেয় শীর্ষ আদালত। আর সেই রায়কে কার্যকর করতে আয়াপ্পা দেবের অমর্যাদা করেছে কেরল সরকার।
সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশ আর পিনারাই বিজয়ন সরকারের সেই নির্দেশকে কার্যকর করার যে পদক্ষেপ নিয়েছে, তা হিন্দু সমাজকে অশান্ত ও ক্ষুব্ধ করেছে।
তাঁর কথায়, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী যদি কোনও মহিলা সাবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ করতে চান, তবে তাঁকে বাধা দেওয়া উচিত নয়। কিন্তু রাজ্যের কোনও মহিলাই মন্দিরের প্রাচীন ঐতিহ্যকে অসম্মান করে আয়াপ্পা দেবের দর্শন করতে চাননি। তাই, কেরল সরকার শ্রীলঙ্কা থেকে মহিলাদের এনে মন্দিরের পেছনের দরজা দিয়ে ঢুকিয়েছে।
‘ধর্ম সংসদে’ মোহন ভাগবত ঘোষণা করেন, সুপ্রিম কোর্টে আবেদনকারীরা কখনওই আয়াপ্পা দেবের ভক্ত ছিলেন না। তাই সাবরীমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকারের বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে যে হিন্দু আন্দোলন চলছে, তা সর্বান্তকরণে সমর্থন করে আরএসএস। তিনি বলেন, হিন্দু ধর্মকে প্রভাবিত করতে অনেক ষড়যন্ত্র হয়, সাবরীমালা মন্দিরে ঋতুমতী মহিলাদের প্রবেশাধিকার তার মধ্যে একটি। তিনি কেরলের বাম সরকারের কড়া সমালোচনা করে বলেন, হিন্দুদের বিরুদ্ধে অভিসন্ধিমূলক পদক্ষেপ নিয়ে মহিলাদের প্রবেশ করানো হয় সাবরীমালার গর্ভগৃহে। এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে রুখে দাঁড়াতে হবে।

Comments
Loading...