শনিবার নদিয়ার ৮ কেন্দ্রে ভোট, ২০১৬ ও ২০১৯ নির্বাচনের ফলাফল কী?

নদিয়া জেলায় মোট ১৭টি বিধানসভা কেন্দ্র। এরমধ্যে পঞ্চম দফায় ভোটগ্রহণ ৮ টি কেন্দ্রে। নদিয়ার ৮ কেন্দ্র- শান্তিপুর, রানাঘাট উত্তর-পশ্চিম, কৃষ্ণগঞ্জ, রানাঘাট উত্তর-পূর্ব, রানাঘাট দক্ষিণ, চাকদহ, কল্যাণী, হরিণঘাটা।

দেখে নেওয়া যাক ২০১৬ আর ২০১৯ ভোট ভিত্তিক এই কেন্দ্রগুলিতে কী ফলাফল ছিল?

শান্তিপুর বিধানসভায় ২০১৬ সালে কংগ্রেসের অরিন্দম ভট্টাচার্য ১৯,৪৮৮ ভোটের ব্যবধানে তৃণমূল প্রার্থী অজয় দে’কে হারিয়ে দেন। ২০১৯ লোকসভায় শান্তিপুর কেন্দ্রে বিজেপি ৩৫ হাজার ভোটে এগিয়ে।
একুশের ভোটে শান্তিপুর কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী অজয় দে। জগন্নাথ সরকারকে টিকিট দিয়েছে বিজেপি আর কংগ্রেস প্রার্থী হয়েছেন ঋজু ঘোষাল।

২০১৬ সালে রানাঘাট উত্তর-পশ্চিম কেন্দ্রে কংগ্রেসের শঙ্কর সিংহ ১,০৯,৬০৭ ভোট পান। তৃণমূলের পার্থসারথি চ্যাটার্জি ৮৬,১৮৭ টি ভোট পান। ২০১৯ সালের লোকসভায় এই কেন্দ্রে ৪৪,৪৩২ ভোটে এগিয়ে বিজেপি।
এবার এই কেন্দ্রে তৃণমূলের টিকিটে লড়াই করছেন কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে আসা শঙ্কর সিংহ। অন্যদিকে এবার শঙ্কর সিংহের প্রধান প্রতিপক্ষ সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া পার্থসারথী চ্যাটার্জি। সংযুক্ত মোর্চার হয়ে লড়ছেন বিজয়েন্দু বিশ্বাস।

কৃষ্ণগঞ্জ বিধানসভায় ২০১৬ সালে তৃণমূল প্রার্থী সত্যজিৎ বিশ্বাস জেতেন (১,১৪,৬২৬)। সিপিএমের মৃণাল বিশ্বাস পেয়েছিলেন ৭০,৬৯৮ ভোট। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৩৭,৫০০ ভোটে এগিয়ে বিজেপি। সত্যজিৎ বিশ্বাসকে দুষ্কৃতীরা খুন করে।
এখানে এবার তৃণমূল প্রার্থী তাপস মন্ডল। আইএসএফ প্রার্থী অনুপ মণ্ডল। আশিস কুমার বিশ্বাসকে প্রার্থী করেছে বিজেপি।

রানাঘাট উত্তর-পূর্ব বিধানসভা আসনে ২০১৬ সালে জয়লাভ করেছিলেন তৃণমূলের সমীরকুমার পোদ্দার (৯৩,২১৫)। ২০১৯ সালের লোকসভায় এই কেন্দ্রে বিজেপি এগিয়ে ৪৩ হাজারের বেশি ভোটে।
এবার এখানে তৃণমূল সমীরকুমার পোদ্দারের ওপর ভরসা রেখে তাঁকেই প্রার্থী করেছে। বিজেপির টিকিটে লড়ছেন অসীম বিশ্বাস। দীনেশচন্দ্র বিশ্বাসকে প্রার্থী করেছে আইএসএফ।

২০১৬ সালের বিধানসভায় রানাঘাট দক্ষিণ কেন্দ্রে জেতেন সিপিএম প্রার্থী রমা বিশ্বাস (১,০৪,১৫৯)। তৃণমূলের আবির বিশ্বাস পেয়েছিলেন ৮৬,৯০৬ টি ভোট। এই কেন্দ্রে ২০১৯ লোকসভায় ৪৪ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে বিজেপি।
এবারও সিপিএম প্রার্থী রমা বিশ্বাস। তৃণমূল টিকিট দিয়েছে বর্ণালী দে-কে। মুকুটমণি অধিকারী লড়াই করছেন বিজেপি টিকিটে।

চাকদহ কেন্দ্রে ২০১৬ এর ভোটে জয় পেয়েছিলেন রত্না কর ঘোষ (৯৪,২৪১)। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৩০ হাজার ভোটের লিড আছে বিজেপির।
এই কেন্দ্রে এবার তৃণমূল প্রার্থী শুভঙ্কর সিংহ। বিজেপি প্রার্থী বঙ্কিম চন্দ্র ঘোষ। সিপিএমের নারায়ণ দাশগুপ্ত।

কল্যাণী বিধানসভায় ২০১৬ সালে জেতেন তৃণমূলের রমেন্দ্রনাথ বিশ্বাস (৯৫,৭৯৫)। সিপিএমের অলোকেশ দাস পেয়েছিলেন ৬৯,৭০০ ভোট। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৭ হাজার ভোটে এগিয়ে বিজেপি।
কল্যাণী কেন্দ্রে এবার অম্বিকা রায়কে প্রার্থী করেছে বিজেপি। অনিরুদ্ধ বিশ্বাস লড়ছেন তৃণমূলের টিকিটে। সিপিএম প্রার্থী সবুজ দাস।

হরিণঘাটা কেন্দ্রে ২০১৬ সালে জেতেন তৃণমূল প্রার্থী নীলিমা নাগ (৯৪,৫৩০)। ২০১৯ সালের হিসেব অনুযায়ী বিজেপি এগিয়ে ৯ হাজার ভোটে।
এবারও এখানে তৃনমূল প্রার্থী নীলিমা নাগ(মল্লিক)। অসীম সরকারকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। সিপিএম প্রার্থী অলোকেশ দাস।

Comments
Loading...