দিঘায় চালু হচ্ছে সি-প্লেন, বিদেশি পর্যটক টানতে নয়া উদ্যোগ রাজ্যের

পর্যটক টানতে দিঘায় এবার চালু হচ্ছে সি-প্লেন পরিষেবা। তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর দিঘাকে রাজ্যের বড় পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে। শুরু হয়েছে হেলিকপ্টার পরিষেবা। তৈরি হয়েছে কনভেনশন সেন্টার। কয়েক মাস আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ঘোষণা করেন, পুরির জগন্নাথ মন্দিরের আদলে দিঘাতেও তৈরি হবে মন্দির। তাঁর মতে, পর্যটন কেন্দ্রে মন্দির তৈরি হলে তা আরও বেশি করে মানুষকে আকৃষ্ট করবে। এছাড়াও দিঘায় পর্যটক টানতে একাধিক প্রকল্প ও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এবার সেই উদ্যোগে যুক্ত হল সি-প্লেন পরিষেবা। সরকারি সূত্রের খবর, শীঘ্রই দিঘায় চালু হচ্ছে সি-প্লেন পরিষেবা। সরকার আশাবাদী, দিঘায় সি-প্লেন পরিষেবা চালু হলে বিদেশি পর্যটকরা আরও আকৃষ্ট হবেন। ফলে পূর্ব মেদিনীপুরের এই বিখ্যাত পর্যটন কেন্দ্রের আঞ্চলিক অর্থনীতির আমূল পরিবর্তন ঘটবে। ব্যবসায়িক পরিবেশের শ্রীবৃদ্ধি হবে। সরকারি সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যাত্রীদের নিয়ে বিমান নামবে সমুদ্রের উপর। সেখান থেকে নৌকায় বা লঞ্চে করে পর্যটকরা পৌঁছবেন সমুদ্র সৈকতে।
রাজ্য পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, দিঘায় সি-প্লেন চালানোর প্রস্তাব কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ পবনহংস সংস্থার কাছে পাঠানো হয়েছে।  সংশ্লিষ্ট সংস্থাটি মূলত হেলিকপ্টার চালায়। অতীতে রাজ্যের তরফে পবনহংস সংস্থার কাছ থেকে কপ্টার ভাড়াও নেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি এই সংস্থাটি আন্দামানে সি-প্লেন চালিয়েছে। বিদেশ থেকে সেই বিমান ভাড়া করা হয়েছিল। তবে সরকারি সূত্রের খবর, কেউ কেউ সি-প্লেনের বদলে উভচর বিমান চালানোর পক্ষে সওয়াল করেছেন। কারণ গঙ্গাবক্ষে সি-প্লেন চালানো গেলেও তা রাজ্যের অন্যান্য জায়গায় যেতে পারবে না। তাই বিদেশি পর্যটক টানতে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে উভচর বিমান চালানোর পক্ষে সওয়াল করেছিলেন তাঁরা। দিঘায় সি-প্লেন পরিষেবা চালু করা নিয়ে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন রাজ্যের শীর্ষ আমলারা।

Comments
Loading...