মনীশ শুক্লা খুনে গ্রেফতার শার্প শুটার

অনীশকে হেফাজতে নিতে সিআইডির একটি টিমকে তামিলনাড়ু পাঠানো হচ্ছে

বিজেপি নেতা মনীশ শুক্লার খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত শার্প শুটার অনীশ ঠাকুরকে গ্রেফতার করল তামিলনাড়ুর পুলিশ। লালবাজার সূত্রে খবর, অনীশকে হেফাজতে নিতে সিআইডির একটি টিমকে তামিলনাড়ু পাঠানো হচ্ছে। তামিলনাড়ুতে একটি ডাকাতির ঘটনায় তাকে গ্রেফতার করে সেখানকার পুলিশ।

গতবছর অক্টবরের প্রথম রবিবার সন্ধ্যায় টিটাগড়ে বিটি রোডের ধারে দুষ্কৃতীরা একটি মোটরসাইকেলে করে এসে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় বিজেপির এই তরুণ নেতা তথা কাউন্সিলার মনীশ শুক্লকে লক্ষ্য করে। ভর সন্ধ্যাবেলা প্রকাশ্যে শুট আউটে তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় এলাকায়। শুরু হয় তুমুল রাজনৈতিক তরজা। বিজেপির অভিযোগ ছিল এই ঘটনার পেছনে রয়েছে তৃণমূল। অভিযোগ পালটা অভিযোগে সরগরম হয়ে ওঠে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের রাজনৈতিক পরিস্থিতি।

[আরও পড়ুন- শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের অভিষেক ব্যানার্জির]

প্রসঙ্গত ব্যারাকপুরের সাংসদ অজুৰ্ন সিংহের অনুগামী হিসেবে এলাকায় মনীশের প্রভাব ছিল। অর্জুন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কিছুদিন পরেই মনীশও গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান। রাজনৈতিক তরজার মধ্যেই মনীশের খুনের তদন্ত ভার সিআইডির হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার।

সিআইডির কাছে খবর ছিল মনীশকে হত্যার পর দক্ষিণের রাজ্যগুলিতে আত্মগোপন করেছে আততীয়রা। ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতারের পর অনীশ ঠাকুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় পশ্চিমবঙ্গের মনীশের খুনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সে। তারপরই লালবাজারকে বিষয়টি জানানো হয় তামিলনাড়ু পুলিশের তরফে। ইতিমধ্যেই এই মনীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় ১০ জন অভিযুক্তর নামে চার্জশিট জমা পড়েছে। সিআইডির চার্জশিটে সন্দেহভাজন হিসেবে আরও ১২ জনের নাম রয়েছে। এঁদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

 

Comments
Loading...