১৭ মিনিটে মসজিদ ধ্বংস করেছি, রাম মন্দির বানাতে কত দিন লাগবে? প্রশ্ন শিবসেনা নেতার

অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরি নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়ালো এক সময়ের জোট বন্ধু শিবসেনা। অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরি সংক্রান্ত মামলা এখনও সুপ্রিম কোর্টের বিচারাধীন। আর ঠিক তখনই রাম মন্দির তৈরি করতে বিজেপি সরকারকে তোপ শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের। শুক্রবার সুর চড়িয়ে সঞ্জয় রাউত জানিয়েছেন, তাদের মাত্র ১৭ মিনিট লেগেছিল বাবরি মসজিদ ধ্বংস করতে। আর রাম মন্দির তৈরিতে আইন পাশ করাতে কীভাবে এত সময় লাগছে, তাতে একরকম বিস্মিত তিনি। সঞ্জয়ের প্রশ্ন, ‘কাগজ বানানে মে কিতনে ওয়াক্ত লাগতা হ্যায়?’ অর্থাৎ, আইন বানাতে আর কত সময় লাগে?
রবিবার থেকে রাম মন্দির স্থাপনের জন্য বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) এর মতো হিন্দু সংগঠনগুলি জড়ো হচ্ছে অযোধ্যায়। সেখানে বিজেপির এক সময়কার বন্ধু শিবসেনাও থাকছে। কয়েকদিনের মধ্যে সেখানে শিবসেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরেরও যাওয়ার কথা রয়েছে।
ডিসেম্বর মাসে পার্লামেন্টের শীতকালীন অধিবেশনে কেন্দ্র সরকারকে অর্ডিন্যান্স আনার দাবি জানিয়েছে শিবসেনা। রাউতের দাবি, রাজ্যসভায় অধিকাংশ সদস্যই রাম মন্দির তৈরির পক্ষে। আর যারা এর বিপক্ষে তাদের জন্য দেশে ঘুরে-বেড়ানো এরপর সমস্যার হবে বলে শাসান এই শিবসেনা নেতা।
১৯৯২ সালের ৬ই ডিসেম্বর। রাম মন্দিরের দাবিতে ষোড়শ শতাব্দীতে তৈরি বাবরি মসজিদ এক লহমায় ধ্বংস করেছিল হিন্দুত্ববাদীরা। তাদের বিশ্বাস, ওই স্থানে রাম মন্দিরকে ধ্বংস করে তৈরি হয়েছিল মসজিদ। কয়েক দশক ধরেই ভারতীয় রাজনীতিতে এক বিভাজন রেখা টেনেছে এক বিষয়। আর ঠিক ভোটের আগেই কিছু রাজনৈতিক দলের কাছে এটি একটি ‘বড় ইস্যু’।
রাম মন্দির নিয়ে বিজেপি সরকার ভাল রকম চাপে রয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরে আরএসএসও বিশেষ অর্ডিন্যান্স এনে রাম মন্দির তৈরি করার কথা ঘোষণা করে। লোকসভা ভোট যতই এগোচ্ছে, ততই রাম মন্দির নিয়ে কেন্দ্রের ওপর চাপ তৈরি করছে বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন।

Comments
Loading...