পাকিস্তানে গিয়ে খালিস্তানী নেতার সঙ্গে ছবি নিয়ে ফের বিতর্কে সিধু, সমালোচনায় বিজেপি

বিতর্ক কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না পঞ্জাবের কংগ্রেস মন্ত্রী এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার নভজ্যোৎ সিংহ সিধুর। প্রথমে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শপথ অনুষ্ঠানে গিয়ে বিরোধীদের কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন। পাকিস্তান সেনা প্রধানকে সৌজন্যের ‘ঝাপ্পি’ দিয়ে দলের বিরাগভাজনও হন। দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে কারতারপুর করিডর খোলার অনুষ্ঠানে ফের পাকিস্তানে হাজির হন সিধু। আর সেই অনুষ্ঠানেই এবার আরও বড় বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন তিনি।
খালিস্তানী জঙ্গী গোপাল সিংহ চাওলার সঙ্গে একটি ছবিতে দেখা যায় সিধুকে। মুহূর্তের মধ্যে সেই ছবি সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হয়। এই ছবিকে কেন্দ্র করে বিরোধীরা তীব্র সমালোচনা শুরু করেছে সিধুর। একদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ যে অনুষ্ঠান এড়িয়ে গিয়েছেন, সেখানে সিধুর পাকিস্তান সফর এবং ‘বন্ধু’ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় পর্যন্ত তাও ঠিক ছিল। কিন্তু যে খালিস্তানী জঙ্গিরা কিছুদিন আগে অমৃতসরে নাশকতার ঘটনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছে পঞ্জাব পুলিশ, সেই খালিস্তানী নেতার সঙ্গে একই ফ্রেমে সিধুকে দেখে স্বভাবতই ক্ষুব্ধ ও বিস্মিত অনেকে। বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নকভি স্পষ্ট জানিয়েছেন, পাকিস্তানের মাটিতে সিধুর এই ‘ট্যাকটিক্স’ মোটেই ভালো চোখে দেখছেন না তাঁরা। যে পাকিস্তানি সেনা প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াকে জড়িয়ে ধরে বিতর্কের সূত্রপাত করেছিলেন সিধু, তাঁকেও ওই ছবিতে এক ফ্রেমে দেখা গিয়েছে।
ইতিমধ্যেই পাক প্রধানমন্ত্রীর ‘শান্তি বার্তা’, কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে মন্তব্য এবং সর্বোপরি দেশের প্রধানমন্ত্রী নাম না করে কটাক্ষ আলোচনা ও সমালোচনার সৃষ্টি করেছে। বলা বাহুল্য, সিধুর এই ছবি সেই আলোচনা আরও বাড়াল। অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরসিমরত কউর, যিনি করতারপুর করিডর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিধু প্রসঙ্গে নিউজ এজেন্সি এএনআই-কে বলেছেন, দেখে মনে হয়েছে ভারতের থেকে পাকিস্তানে বেশি সমাদর পান সিধু। সিধুকে নাকি পাক প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তান থেকে নির্বাচন লড়ার কথাও বলেছেন।
উল্লেখ্য, এই বিতর্কিত এই খালিস্তানী নেতা গোপাল সিংহ চাওলা পাকিস্তান শিখ গুরদুয়ারা পরবন্ধক কমিটি প্রধান। তাঁর সঙ্গে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের নেতা হাফিজ সইদের যোগ আছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

Comments
Loading...