লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানো সোনু সুদকে রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বীকৃতি, আগে এই সম্মান পেয়েছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, ডেভিড বেকহ্যামরা

লকডাউনে বহু পরিযায়ী শ্রমিককে বাড়ি পৌঁছে দিয়ে, অনেকের রুজি রোজগারের ব্যবস্থা করে দেশবাসীর অকুণ্ঠ ভালোবাসা পেয়েছেন সোনু সুদ। পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে দাঁড়িয়ে নিঃস্বার্থ ভাবে কাজ করার জন্য এবার রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বীকৃতি পেলেন এই অভিনেতা। তাঁর কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ‘ইউনাইটেড নেশনস ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম’ বা UNDP ‘এসডিজি স্পেশাল হিউম্যানিটেরিয়ান অ্যাকশন অ্যাওয়ার্ড’ দিল সোনু সুদকে।

করোনা সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে জারি হওয়া লকডাউনে বহু পরিযায়ী শ্রমিককে বাড়ি ফিরতে সাহায্য করেছেন তিনি। বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয় ছাত্রদের দেশে ফিরতে উদ্যোগ নিয়েছেন। এমনকী মুম্বইয়ে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের সময় বহু মানুষকে নিজের হোটেলে ফ্রিতে আশ্রয় দিয়েছেন সোনু। এছাড়াও লকডাউনের সময়ে দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনায় সাহায্য করা, বেকার যুবকদের কাজ দেওয়া, অসুস্থদের পাশে দাঁড়ানো। তিনি কি করেননি সেটাই এখন বড়ো প্রশ্ন। পাশাপাশি আর্থিক সংকটে পড়া অভিনেতা-অভিনেত্রীদেরও পাশে থেকেছেন তিনি।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরা আজ ইতিহাসের পাতায়। তবে সামাজিক কাজের যে উদ্যোগ সোনু নিয়েছিলেন, তা বন্ধ হয়নি। এই কাজের জন্য তিনি আলাদা টিম তৈরি করেছেন, চালু করেছেন হেল্প লাইন। সেই টিম এখন দরিদ্রদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে, বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে নিয়োগের খোঁজখবর।

এইসব কাজের স্বীকৃতি হিসেবে রাষ্ট্রপুঞ্জের সম্মান পেলেন সোনু সুদ। সোমবার ভার্চুয়াল মিটিংয়ে অভিনেতাকে এই পুরস্কার দেওয়ার কথা জানায় রাষ্ট্রপুঞ্জ। সম্মান পেয়ে স্বাভাবিক ভাবেই উচ্ছ্বসিত সোনু সুদ। তাঁর কথায়, রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বীকৃতি সত্যিই বিরল সম্মান। তবে আমি যা করেছি, তা খুবই সামান্য। দেশের সহ-নাগরিকদের জন্য যা যা পদক্ষেপ করেছি, তা কোনও প্রত্যাশা ছাড়াই করেছি। তবে, স্বীকৃতি পেলে অবশ্যই ভালো লাগে।

এর আগে রাষ্ট্রপুঞ্জের ‘স্পেশাল হিউম্যানিটেরিয়ান অ্যাকশন অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, ডেভিড বেকহ্যাম, লিওনার্দো ডি’ক্যাপ্রিও, এমা ওয়াটসন, লিয়াম নিসন, কেট ব্ল্যাঞ্চেট, আন্তোনিও ব্যান্দেরাস, নিকোল কিডম্যান, প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতো তারকারা। এ বার সেই তালিকায় যুক্ত হল সোনু সুদের নাম।

Comments
Loading...