সব্যসাচী দত্তর পর এবার অপসারিত ডোমকলের চেয়ারম্যান সৌমিক হোসেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কড়া বার্তা তৃণমূলের

আর্থিক দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগে মুর্শিদাবাদের ডোমকল পুরসভার চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারিত হলেন তৃণমূল নেতা সৌমিক হোসেন।
বেশ কিছুদিন ধরেই সৌমিক হোসেনের কাজে অখুশি ছিলেন তাঁর দলেরই কাউন্সিলাররা। তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা এনেছিলেন ডোমকল পুরসভার ১৩ জন তৃণমূলের কাউন্সিলার। অবশেষে বৃহস্পতিবার শুরু হয় আস্থা ভোট। ২১ আসনের ডোমকল পুরসভার মধ্যে ১৫ জন তৃণমূল কাউন্সিলারই সৌমিক হোসেনের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন। ভোটাভুটিতে পরাজয়ের পর পুরসভার চেয়ারম্যানের পদ থেকে সৌমিক হোসেনকে সরিয়ে দেওয়া হয়।
যদিও বৃহস্পতিবারের আস্থা ভোটে উপস্থিত ছিলেন না সৌমিক হোসেন সহ ৬ জন কাউন্সিলার। ডোমকল পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপকুমার চাকির উপস্থিতিতে শুরু হয় অনাস্থা ভোট। সভায় উপস্থিত ১৫ জন তৃণমূল কাউন্সিলারই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন।
মাত্র বছর দুই আগে তৈরি মুর্শিদাবাদের ডোমকল পুরসভার ২১ আসনে নিরুঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল তৃণমূলের। কিন্তু চেয়ারম্যান সৌমিক হোসেনের কাজে কিছুদিন ধরেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন অধিকাংশ কাউন্সিলার। সৌমিক হোসেনের বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতি, স্বজনপোষণ ও সরকারি কাজে অনীহার মতো অভিযোগ ওঠে। এরপর জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে সৌমিক হোসেনের বিরুদ্ধে ১৩ জন কাউন্সিলার অনাস্থার ডাক দিয়েছিলেন।
তবে আস্থা ভোটে অপসারণের পর তৃণমূল নেতা সৌমিক হোসেনের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Comments
Loading...