ঐতিহাসিক ভাষণ দেখতে বসে হতাশ! অমিত শাহের সভা নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক ট্যুইট সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর

হেলিকপ্টারে ত্রুটির কারণে ঝাড়গ্রামে পৌঁছতে পারেননি অমিত শাহ। তার বদলে খড়গপুরের হোটেল থেকেই ঝাড়গ্রামের জনসভায় ভার্চুয়াল ভাষণ দিয়েছেন। এবং তাও নির্ধারিত সময়ের বেশ অনেকটা দেরিতে। যা নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে টুইটে খোঁচা দিলেন বিজেপিরই রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। তিনি জানিয়েছেন, বিজেপির পূর্ব ঘোষণা মত বাংলার গ্রামীণ এলাকায় অমিত শাহের ঐতিহাসিক জনসভা টিভিতে দেখতে বসেছিলাম। কিন্তু পরপর দু’বার পিছিয়ে যাওয়ার পর আর কোনও চ্যানেলেই তার সম্প্রচার দেখলাম না।

এরপরই বিজেপি নেতার ট্যুইট নিয়ে হইচই পরে যায়। তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ান সেই ট্যুইট রিট্যুইট করেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পরে ঝাড়গ্রামের সভার ফাঁকা চেয়ার শোভিত জনসভার ছবি। তৃণমূলের দাবি, সভায় লোক হয়নি বলেই সভায় যাননি অমিত শাহ। বিজেপি অবশ্য এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে।

রবিবারই রাজ্যে নির্বাচনের প্রচারে এসেছেন অমিত শাহ। সোমবার ঝাড়্গ্রামে সভা করার কথা ছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। কিন্তু এদিন সকালেই জানা যায়, ঝাড়্গ্রামে সভা করবেন না শাহ। ভিডিও কনফারেন্স-এর মারফত তিনি খড়্গপুর থেকেই বক্তব্য রাখবেন। হেলিকপ্টারে যান্ত্রিক ত্রূটির কারণে খড়্গপুর থেকে ঝাড়গ্রামে যেতে পারছেন না তিনি বলেই জানা গিয়েছিল। খড়্গপুরে ঝাড়গ্রামের সভার ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখার পর রানিবাঁধে গিয়ে ভাষণ দেন অমিত শাহ। কিন্তু সেই সভাতেও অমিত শাহের পৌঁছতে দেরি হয়। বিজেপি সূত্রে খবর, হেলিকপ্টার বিগড়ে যাওয়াতেই যত সমস্যা।

Comments
Loading...