‘তোমার থেকে আলাদা হওয়ার কথা ভাবতেও পারিনা’, সৌমিত্র খাঁকে চিঠি সুজাতার

প্রেস কনফারেন্সে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে স্বামী সৌমিত্র খাঁ বলেন স্ত্রীকে ডিভোর্স দেবেন

বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী সুজাতা মন্ডল খাঁ ডিসেম্বরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। সুজাতার সিদ্ধান্তে সরগরম হয়ে উঠেছিল রাজ্য রাজনীতি। সুজাতার তৃণমূলে যোগদানের পরের দিন স্বামী সৌমিত্র খাঁ তাঁকে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিস পাঠান। রবিবার দিন সেই নোটিসেরই জবাবে সুজাতা  তাঁর  স্বামীকে জানালেন ‘আমি কোনও দিনই বিচ্ছেদ চাইনি। আমি আজও ডিভোর্সে রাজি নই। তোমার থেকে আলাদা হব একথা আজও আমি ভাবতে পারিনা’। 

২০ ডিসেম্বর জানা যায় বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী যোগ দেবেন তৃণমূলে। দুপুরে তৃণমূল ভবনে দেখা যায় কুণাল ঘোষ ও সৌগত রায়ের হাত থেকে সুজাতা খাঁ মন্ডল তৃণমূলের পতাকা তুলে নিচ্ছেন। সুজাতার যোগ দেওয়ার দু’ঘন্টার মধ্যেই পাল্টা সাংবাদিক বৈঠক করেন স্বামী সৌমিত্র। প্রেস কনফারেন্সে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে স্বামী সৌমিত্র খাঁ বলেন স্ত্রীকে ডিভোর্স দেবেন।

সৌমিত্রের নোটিশের জবাবে পুরোনো স্মৃতি উস্কে সুজাতা মণ্ডল খাঁ লেখেন ‘গত ১০ বছর একসঙ্গে বহু চড়াই-উতরাই পেরিয়েছে। সব পরিস্থিতে আমি তোমার পাশে থেকেছি, সঙ্গে থেকেছি। কিন্তু তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরেই তুমি আমায় পর করে দিলে!’  সৌমিত্রকে পাঠানো চিঠির পরতে পরতে স্বামীকে মনে করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তাঁর ভালোবাসার কথা। সুজাতার অভিযোগ আজ বিজেপির জন্যই তিনি ঘরছাড়া। 

সুজাতা তৃণমূলে যোগদানের পরেই সৌমিত্র অভিযোগ করেছেন তৃণমূল তাঁর ঘরের লক্ষীকে চুরি করেছে। এদিন বিজেপি সাংসদকে সে কথা মনে করিয়ে সুজাতার কটাক্ষ ‘যদি সত্যিই আমায় ঘরের লক্ষী মনে করতে তবে কি পারতে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিতে? আর যদি তা মনে না কর, তাহলে তুমি যে অভিনয় করেছ, তা নিঃসন্দেহে অনবদ্য’৷ পাশাপাশি বিজেপিকে আক্রমণ করে সুজাতার দাবি ‘তোমার আমাকে নোটিস পাঠানোই প্রমান করে দিলো যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সমস্ত স্ত্রীকে নিজেদের স্বপ্ন বিসজর্ন দিতে হবে।  

সবমিলিয়ে ভোটের বঙ্গে ক্রমেই বাড়ছে দাম্পত্যের উত্তাপ। 

Comments
Loading...