রঞ্জন গগৈর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার মামলা খারিজ সুপ্রিম কোর্টে, কটাক্ষ মহুয়ার

রঞ্জন গগৈর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার মামলা খারিজ করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। অভিযোগের পিছনে বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র থাকতে পারে বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই নিয়ে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টকে কটাক্ষ করলেন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

ব্যঙ্গাত্মক সুরে টুইটারে তিনি লেখেন, প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অতপভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য নয়, বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে কি না, তা দেখতেই কমিটি গড়া হয়েছিল বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এরপরেই তাঁর কটাক্ষ, যৌন হেনস্থার শিকার সকলে মিলেই একসঙ্গে ষড়যন্ত্র করেছিল।

[আরও পড়ুন- ক্রিকেটীয় পরিভাষায় পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে ট্যুইট মনোজ তিওয়ারির, কাকে খোঁচা?]

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির পদে থাকাকালীন রঞ্জন গগৈয়ের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠে। প্রধান বিচারপতির অফিসে কর্মরত এক মহিলা সেই অভিযোগ এনেছিলেন। কিন্তু প্রশ্ন অয়হে যখন নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিচার করতে বসেন রঞ্জন গগৈ। পরে বিচারপতি অরুণ মিশ্র এবং সঞ্জীব খন্নার ডিভিশন বেঞ্চ যাবতীয় অভিযোগ খারিজ করে।

আদালত জানিয়েছে, জাতীয় নাগরিক পঞ্জি-সহ কিছু বিষয়ে কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গগৈ। সেই কারণেই তাঁকে ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করা হতে পারে। এরপরেই প্রশ্ন উঠতে থাকে দু’বছর আগে কী জন্য গঠন করা হয়েছিল কমিটি? রঞ্জন গগৈয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ খতিয়ে দেখতে কি আদৌ কমিটি গঠন করা হয়েছিল? নাকি প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হয়েছে কিনা তা দেখতে কমিটি তৈরি হয়েছিল? ট্যুইটে এই প্রশ্নই তুলেছেন মহুয়া মৈত্র।

 

Comments
Loading...