কেন্দ্রের অস্বস্তি বাড়িয়ে সুপ্রিম কোর্ট বলল, সিবিআই প্রধানের বিরুদ্ধে তদন্ত অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির তত্বাবধানে দু’সপ্তাহে শেষ করতে হবে

সিবিআই-এর অপসারিত প্রধান অলোক ভার্মার বিরুদ্ধে তদন্ত দু’সপ্তাহের মধ্যে শেষ করার জন্য সেন্ট্রাল ভিজিলেন্স কমিশনকে (সিভিসি) নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। এবং দেশের শীর্ষ আদালত জানাল, এই তদন্ত হবে এক অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি তত্বাবধানে। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দিলেন, এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে ১২ ই নভেম্বর। ততদিন পর্যন্ত সিবিআই-এর অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নাগেশ্বর রাও কোনও নীতিগত সিদ্ধান্ত (পলিসি ডিসিশন) নিতে পারবেন না। তাঁকে রুটিন কাজ করতে হবে। পাশাপাশি, ঘুষকাণ্ডে অভিযুক্ত সিবিআই-এর স্পেশাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানার আবেদনও এদিন বাতিল করতে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।
সিবিআই-এর অন্দরে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে শীর্ষ দুই কর্তার বেনজির দ্বন্দ্বের জেরে গত মঙ্গলবার মাঝরাতে সংস্থার প্রধান অলোক ভার্মা এবং স্পেশাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানাকে ছুটিতে পাঠিয়ে দেয় কেন্দ্র। অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানের দায়িত্ব দেওয়া হয় নাগেশ্বর রাওকে। তাঁকে অপসারণের বিরোধিতা করে বুধবারই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন অলোক ভার্মা। কেন্দ্রের বক্তব্য ছিল, যেহেতু সংস্থার প্রধান এবং স্পেশাল ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, তাই সিভিসি পুরো বিষয়ের তদন্ত করছে। বিরোধীদের অভিযোগ ছিল, মোদীর ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত গুজরাত ক্যাডারের অফিসার আস্থানাকে বাঁচানোর জন্যই সিবিআই প্রধানকে সরানো হয়েছে। পাশাপাশি, আরও একধাপ এগিয়ে বিরোধীরা অভিযোগ করে, রাফাল দুর্নীতির তদন্ত নিয়ে এগোচ্ছিলেন অলোক ভার্মা। সেই কারণেই তাঁকে সরানো হয়েছে।
এদিন সুপ্রিম কোর্টে সিভিসি জানায়, ৩ সপ্তাহ সময় দরকার সিবিআই প্রধানের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করার জন্য। কিন্তু সিভিসি’র আবেদন নাকচ করে প্রধান বিচারপতি জানান, এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এত সময় দেওয়া যাবে না। দু’সপ্তাহের তদন্ত শেষ করার জন্য সিভিসি’কে নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি। শুধু তাই নয়, এই তদন্ত মনিটর করবেন সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ কে পট্টনায়েক।
পাশাপাশি, কেন্দ্রের অস্বস্তি বাড়িয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, এই সময়ের মধ্যে নাগেশ্বর রাও কোনও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত, পলিসি ডিসিশন নিতে পারবেন না। প্রসঙ্গত, রাকেশ আস্থানার বিরুদ্ধে ঘুষকাণ্ডের যে তদন্ত অলোক ভার্মার নেতৃত্বে সিবিআই শুরু করেছিল, তার তদন্তকারী অফিসারদের ইতিমধ্যেই আন্দামনসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বদলি করে দেওয়া হয়েছে। এই সমস্ত তথ্য এবং কাগজপত্র সিবিআইকে বন্ধ খামে আদালতে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি।

Comments
Loading...