গুজরাত দাঙ্গায় ১০ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত ৪ দোষীকে জামিন দল সুপ্রিম কোর্ট

২০০২ সালে গুজরাতে নারোডা পাতিয়া গণহত্যা মামলায় ৪ সাজাপ্রাপ্তকে জামিন দিল সুপ্রিম কোর্ট। ওই চারজনের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য প্রমাণের অভাবে তাদের জামিনের নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত।
২০০২ সালে গুজরাতের নারোডা পাতিয়া এলাকায় দাঙ্গার ভয়াবহ প্রভাব পড়ে। সেখানে ৯৭ জন মুসলিমকে হত্যার ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উমেশভাই ভারওয়াদ, রাজ কুমার, হারসাদ ও প্রকাশভাই রাঠোরকে দশ বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছিল গুজরাত হাইকোর্ট। গত বছর জুন মাসে ওই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় এই চার অভিযুক্ত।
মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট বলে, ওই চার অভিযুক্তের দণ্ডাদেশ বিতর্কিত। তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই তাদের জামিন দেওয়া হল।
২০১৮ সালের ২৫ শে জুন গুজরাত হাইকোর্ট নারোডা পাতিয়ায় নির্মম হত্যাকাণ্ডে মোট ১৬ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে, যাদের মধ্যে ছিলেন বিজেপি মন্ত্রী মায়া কোডনানিও। এর মধ্যে উমেশভাই ভারওয়াদ, রাজ কুমার, হারসাদ ও প্রকাশভাই রাঠোরকে দশ বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত।
রায় দানের আগে আদালত জানিয়েছিল, এই নির্মম হত্যাকাণ্ড কেবল মৃত মানুষদের পরিবারকে পীড়া দেয়নি, সমাজেও বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। তাই সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতার কারণেই দোষীদের সাজা ঘোষণা করা হল।
তবে সুপ্রিম কোর্ট মঙ্গলবার বলে, ওই চার জনের বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা তর্ক সাপেক্ষ। তাই তাদের জামিনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...