শুভেন্দু: কে ডি সিংহের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে প্রতারিতদের অর্থ ফেরানো হোক

কান টানলে মাথা আসে, কে ডি সিংহের গ্রেফতারি নিয়ে মন্তব্য শুভেন্দু অধিকারীর

বেআইনি আর্থিক লেনদেন মামলায় বুধবার ইডি’র হাতে গ্রেফতার হয়েছেন তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ তথা অ্যালকেমিস্ট কর্তা কে ডি সিংহ। অ্যালকেমিস্টের বিরুদ্ধে প্রায় ২৩৯ কোটি টাকার তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। এই প্রেক্ষিতে কে ডি সিংহকে তীব্র আক্রমণ করলেন নারদা কাণ্ডে বিদ্ধ অধুনা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

কে ডি’র গ্রেফতারি প্রসঙ্গে তৃণমূলত্যাগী বিজেপি নেতার দাবি, পশ্চিমবঙ্গের ৭০ লক্ষ পরিবার অ্যালকেমিস্ট দ্বারা প্রতারিত হয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেসের এই নেতা এবং রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ পশ্চিমবঙ্গের ৭০ লক্ষ পরিবারের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন।তাঁরা একেবারে প্রান্তিক মানুষ। আমি বলব, শুধু গ্রেফতার নয়, তাঁর সম্পত্তি ইডি বাজেয়াপ্ত করে প্রতারিতদের টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করুক।

তদন্তকারী সংস্থা ইডি জানিয়েছে, অ্যালকেমিস্টের বিরুদ্ধে বাজার থেকে বেআইনিভাবে যে কোটি – কোটি টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে, সেই টাকা একাধিক প্রভাবশালীর কাছে গিয়েছে। এমনকী, সেই টাকা বিদেশেও পাচার হতে পারে বলে আশঙ্কা ইডি কর্তাদের। এই মামলার তদন্তে নেমে সংস্থার একাধিক কর্মী – আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করছিল ইডি। জেরা চলছে অ্যালকেমিস্ট কর্তা কেডি সিংহেরও।
আর যে নারদ কাণ্ডে শুভেন্দু বিদ্ধ হন, সেই স্টিং অপারেশনের পুরো টাকা কে ডি সিংহ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। সে সময় তৃণমূলেই ছিলেন কে ডি। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে এদিন শুভেন্দুর কটাক্ষ, ‘কান টানলে তো মাথা আসবেই। কে ডি সিংহকে দিয়েই তো নারদ করিয়েছিলেন, সবাই তো জানে। কার বিয়েবাড়ি দিল্লিতে স্পনসর করেছিল কে ডি সিংহ, সেটা সবাই জানে।’

অ্যালকেমিস্ট চিটফান্ড মামলায় বাজার থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা তোলা হয়েছিল। শুধু পশ্চিমবঙ্গই নয় বিহার, ঝাড়খণ্ড সহ একাধিক রাজ্যে মানুষকে বেশি লাভের লোভ দেখিয়ে টাকা লুট হয় বলে অভিযোগ। সেই সূত্রেই বুধবার কেডি সিংহকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি। ইডি সূত্রে দাবি, বিপুল পরিমাণ টাকা বিদেশে পাচার করা হয়েছিল। সেই সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে তাঁকে হেফাজতে নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেছে ইডি।

Comments
Loading...