স্বরা ভাস্কর: গণপিটুনিতে মৃত্যু এদেশে মহামারীর আকার ধারণ করেছে, বিদ্বজ্জনদের খোলা চিঠিকে সমর্থন অভিনেত্রীর

গণপিটুনিতে মৃত্যুর ঘটনা দেশে মহামারীর আকার ধারণ করেছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রের ৪৯ জন বিদ্বজ্জনের সাক্ষর সম্বলিত খোলা চিঠিকে সমর্থন জানিয়ে মন্তব্য অভিনেত্রী স্বরা ভাস্করের। এই পরিস্থিতি থেকে মুখ ফিরিয়ে রাখা যায় না। যেভাবে শিল্পী সাহিত্যিক এবং অন্যান্য পেশার মানুষ এগিয়ে এসেছেন, তার প্রশংসা না করে পারা যায় না। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন স্বরা।

চিঠিতে বিশিষ্টজনেরা লিখেছিলেন, যেভাবে দেশজুড়ে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান ব্যবহার করে গণপিটুনির ঘটনা চলছে, যেভাবে সংখ্যালঘুরা নিজের দেশেই ভয় এবং নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে বাঁচতে বাধ্য হচ্ছেন, তাতে অতি দ্রুত প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপ জরুরি। সেই সঙ্গে গণপিটুনিতে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেওয়ারও আর্জি জানানো হয় নরেন্দ্র মোদীকে।
এই চিঠি প্রসঙ্গে বুধবার মুখ খোলেন বলিউড অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর। মুম্বইয়ের একটি অনুষ্ঠানে স্বরা বলেন, সারা দেশে মহামারীর মতো ছড়িয়ে পড়ছে গণপিটুনিতে হত্যার ঘটনা। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে তা থেকে আর মুখ ফিরিয়ে রাখা যাচ্ছে না। গণপিটুনির ঘটনাকে মিথ্যা বা ভুয়ো বলারও কোনও জায়গা নেই। এই চরম বাস্তবতাকে মেনে এর বিরুদ্ধে সবার প্রতিবাদ করা উচিত বলে মন্তব্য করেন স্বরা ভাস্কর। গণপিটুনির ঘটনা যেখানে ঘটছে সেখানকার জেলা প্রশাসনকে সবচেয়ে আগে তৎপর হতে হবে। আর এই কাজ করতে পারেন একমাত্র প্রধানমন্ত্রী। স্বরা বলেন, আমার বিশ্বাস প্রধানমন্ত্রী গণপিটুনির ঘটনার পুনরাবৃত্তি রুখতে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেবেন।

ইতিহাসবিদ সুমিত সরকার, রামচন্দ্র গুহ, চিত্র পরিচালক মণিরত্নম বা অপর্ণা সেনদের প্রধানমন্ত্রীকে লেখা খোলা চিঠিকে ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলে মনে করেন বলিউড অভিনেত্রী। তাঁর কথায়, দেশে যা ঘটছে তাতে লেখক, শিল্পী সবাই প্রভাবিত হচ্ছেন। গত ৩-৪ বছর ধরে তিনি নিজে গণপিটুনির ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন এবং এ নিয়ে কঠোর আইন আনা উচিত বলে মনে করেন স্বরা ভাস্কর।
জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী স্বরা ভাস্কর বরাবরই প্রতিবাদী চরিত্রের। বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীকে লোকসভা ভোটের সময় দেখা গিয়েছে কখনও কানহাইয়া কুমারের প্রচারে আবার কখনও রাজস্থানের শিকার লোকসভা কেন্দ্র থেকে দাঁড়ানো কৃষক নেতা অমরা রাম বা দিল্লির আপ প্রার্থী আতিশির হয়ে প্রচারে। কাঠুয়া বা উন্নাওয়ের ধর্ষণকাণ্ড থেকে মিটু আন্দোলন, দলিত, মুসলিমদের উপর অত্যাচার থেকে ২০০৮ সালের মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুরকে লোকসভা ভোটে বিজেপির প্রার্থী করা, প্রকাশ্য সমালোচনায় কসুর করেননি এই অভিনেত্রী। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো বিশিষ্টদের চিঠির বার্তার মতো তিনিও বিশ্বাস করেন, সরকারের সমালোচনা করা মানেই দেশের বিরোধিতা করা নয়।

Comments
Loading...