Swine Flu: ভারতে অফিস বন্ধ করল তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা SAP, তালা বেঙ্গালুরুর পাশাপাশি মুম্বই, গুরগাঁওয়ের অফিসেও

করোনাভাইরাসের পর এবার নতুন করে উদ্বেগ বাড়াল সোয়াইন ফ্লু-আতঙ্ক। আর সেই উদ্বেগ সরাসরি প্রভাব ফেলল ভারতের সিলিকন ভ্যালিতে। পরিস্থিতি এমনই যে ভারতে তাদের দফতরে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল জার্মান সফটওয়্যার সংস্থা স্যাপ (SAP)।

সোয়াইন ফ্লু আতঙ্কে ভারতে সদর দফতর বন্ধ করে দিল বিশ্ববিখ্যাত সফটওয়্যার সংস্থা স্যাপ। বৃহস্পতিবার স্যাপের দুই কর্মীর দেহে H1N1 সোয়াইন ফ্লু মেলার পর বেঙ্গালুরুর সদর দফতর বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেখানে প্রথমে চলবে অতি ব্যাপক সাফাইয়ের কাজ। তবে শুধু সদর দফতরই নয়, তালা ঝুলছে মুম্বই ও গুরগাঁওয়ের স্যাপ অফিসেও। পরবর্তী নোটিস না দেওয়া অবধি সমস্ত কর্মীকে বাড়ি থেকে কাজ (work from home) করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ইনফেকশন ছড়িয়ে পড়া রুখতে অফিসগুলোকে পুরোপুরি জীবানু শূন্য করে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কর্মীদের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়েছে, ইনফেকশনের লক্ষণ দেখতে পেলেই চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। তবে এই আশঙ্কার কারণ যে দুই স্যাপ কর্মী, তাঁরা কি সোয়াইন ফ্লু আক্রান্ত কারও সংস্পর্শে এসেছিলেন কিংবা সেই সব দেশে ভ্রমণ করেছিলেন, তার উত্তর দেয়নি সংস্থাটি। ওই ২ কর্মীর বর্তমান শারীরিক অবস্থা নিয়েও কিছু জানায়নি স্যাপ।

সোয়াইন ফ্লুর ভাইরাস অত্যন্ত ছোঁয়াচে। সাধারণত জ্বর, সর্দি কিংবা গলাব্যথা এর লক্ষণ বলে মেনেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। ২০০৯ সালে আমেরিকায় সর্বপ্রথম এই মারাত্মক ইনফেকশনের কথা শোনা যায়। ২০১৪-১৫ সালে ভারতেও এই ভাইরাসের থাবায় মৃত্যু হয় শতাধিক মানুষের।

এদিকে চিনে করোনাভাইরাসের তাণ্ডব এখনও অব্যাহত। ডিসেম্বর থেকে এখনও পর্যন্ত অন্তত ২,১০০ মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। শুধু চিনেই নয়, এই মারণ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে চিন ছাড়িয়ে থাইল্যান্ড, কোরিয়া এমনকী ইউরোপ-আমেরিকাতেও। তবে এখনও পর্যন্ত এই ভাইরাসের কোনও দাওয়াই বের করতে পারেননি চিকিৎসা বিজ্ঞানের বিশেষজ্ঞরা।

Comments
Loading...