জুলাই পর্যন্ত টিকার আকাল চলবেই, জানিয়ে দিল সিরাম

দেশজুড়ে করোনা টিকার আকাল। জুলাই পর্যন্ত এ রকম টিকার অভাব চলবে। জানিয়ে দিলেন সিরামের কর্ণধার আদার পুনাওয়ালা। তিনি আরও জানিয়েছেন, জুলাই মাসের পর মাসে ৭ কোটি থেকে বেড়ে টিকার উৎপাদন ১০ কোটি হবে। টিকার আকাল প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ভারতে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ এত তাড়াতড়ি চলে আসবে, তা কেউ ভাবতে পারেনি। পরিস্থিতি ভালো দিকেই এগোচ্ছিল দেখে উৎপাদন বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়নি।

কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পরই আরও বেশি করে টিকা উৎপাদন করার নির্দেশ আসে। টিকা তৈরীর কাঁচামাল এসেছে। এবার তৈরী হচ্ছে টিকা।

ভারতে একাধিক রাজ্যে টিকা পাওয়া যাচ্ছে না। ১৮ ঊর্ধ্বদের টিকাকরণ স্থগিত রেখেছে দেশের প্রায় প্রতিটি রাজ্য। মোদী ঘোষণা করেছিলেন ১ মে থেকে ১৮ বছর উর্দ্ধে সকলকে টিকা কোভিড টিকা দেওয়া হবে। কিন্তু পরে দেখা যায়, দেশে টিকা পাওয়া যাচ্ছে না। ১৮ বছর উর্দ্ধে ছাড়াও টিকা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না ৪৫ বছর বেশি মানুষকেই। এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে একাধিক রাজ্য। অনেক রাজ্য আবার জানিয়ে দিয়েছে সেপ্টেম্বরের আগে কোনও ভাবেই টিকাকরণ করা যাবে না।

প্রথমে সিরামের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, টিকার প্রতিটি ডোজ কেন্দ্রের কাছে বিক্রি করা হবে ১৫০ টাকায়। রাজ্যগুলির কাছে সেঈ ডোজের দাম নেওয়া হবে ৪০০ টাকা। বেসরকারী হাসপাতালগুলিকে টিকা বিক্রি করা হবে ৬০০ টাকায়। কিন্তু এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ দেখাতে শুরু করে একের পর এক রাজ্য। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিনের দামের ক্ষেত্রে বিভাজন নীতির বিরুদ্ধে মুখ খোলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীও।

চাপের মুখে দাম কমাতে বাধ্য হয় সিরাম। জানানো হয় রাজ্যগুলির কাছে ৪০০ টাকার পরিবর্তে ৩০০ টাকা করে নেওয়া হবে প্রতি ডোজে। এরমধ্যে আদর পুনাওয়ালাকে ওয়াই-ক্যাটাগরি নিরাপত্তা দেয় কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানায়, বিভিন্নভাবে হুমকির মুখে পড়তে হচ্ছিল পুনাওয়ালাকে। সেই কারণে নিরাপত্তা দেওয়া হল।

সোমবার দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৬৮ হাজার ১৪৭ জন। এই নিয়ে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১ কোটি ৯৯ লক্ষ ২৫ হাজার ৬০৪ জন।

Comments
Loading...