নদীর গতিপথের রহস্য উম্মোচনে জগদীশ চন্দ্রের ১০০ বছর পর আন্তর্জাতিক সম্মান পাচ্ছেন এই বাঙালি বিজ্ঞানী

নদীর গতিপথের রহস্য উম্মোচনে আন্তর্জাতিক সম্মান পেলেন এক বাঙালি বিজ্ঞানী। তাঁর ৩০ বছরের গবেষণা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেল। ভারতবর্ষ থেকে এই প্রথম দীর্ঘ ৩০ বছর গবেষণার পরে এই ঐতিহ্যশালী আন্তর্জাতিক সম্মান পেলেন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গবেষক ও অধ্যাপক ড.শুভাশিস দে।

পদার্থবিজ্ঞানী অ্যালবার্ট আইনস্টাইনের সন্তান প্রকৃতিবিজ্ঞানী হান্স অ্যালবার্ট আইনস্টাইনের নামে ১৯৮৮ সাল থেকে এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। নদী পরিবহন বা জলপথ নিয়ে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ গবেষণাকারীদের এই পুরস্কার দেওয়া হয়। আমেরিকান সোসাইটি অফ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারস এর পক্ষ থেকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়।

জগদীশচন্দ্র বসুর ১০০ বছর পরে আরেক বাঙালি বিজ্ঞানী নদীর পরিবহন বা জলপথ নিয়ে সারা বিশ্বকে সন্ধান দিলেন। তিনি জানালেন কিভাবে বন্যা হয়, ভেঙে যায় সেতু। তিনি জানিয়েছেন, নদীর গতিপথ পরিবর্তন, নদীর ভাঙন ও বন্যায় সেতু ভেসে যাওয়ার বিষয়ে গবেষনার পর সেই জ্ঞান থেকেই এই পরিকাঠামো ঠিক করা যায়।

এই বছর জুন মাসে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টা শহরে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে পুরস্কার নেবেন আইআইটি খড়গপুরের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক শুভাশিস দে।

Comments are closed.