দিঘায় শিল্প সম্মেলনের প্রথম দিনই কয়েক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব

দিঘায় দু’ দিনের ‘বেঙ্গল বিজনেস কনক্লেভ’-এ (Bengal Business Conclave) প্রথম দিনেই কয়েক হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগের প্রস্তাব এল দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে।
সিঙ্গাপুরের  চাঙ্গি এয়ারপোর্ট জানাল, দুর্গাপুরের অন্ডাল বিমানবন্দরের নিকটবর্তী অঞ্চলে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া এবং কম আয়ের পরিবারদের জন্য হাউসিং প্রোজেক্ট তৈরি করছে তারা। সিঙ্গাপুরের এফ্রাকো এশিয়া সংস্থা ঘোষণা করল, অন্ডাল এয়ারপোর্ট সংলগ্ন এলাকার জনজাতির উন্নয়নের জন্য বড় অঙ্কের বিনিয়োগ করতে প্রস্তুত তারা। প্রসঙ্গত, অন্ডালের কাজী নজরুল ইসলাম বিমানবন্দর থেকে ২২ টি বিমান যাতায়াত করে। যার মধ্যে মুম্বই, দিল্লি, চেন্নাই, হায়দরাবাদের মতো মেট্রো সিটিতে সরাসরি উড়ান পরিষেবার সুবিধা রয়েছে এই বিমানবন্দর থেকে।
এছাড়া নেদারল্যান্ডসের ডাচ কনসোর্টিয়াম, জার্মানির আর্থিক সংস্থা কেএফডব্লু এবং ইউনাইটেড নেশনস ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের ইউনিডোর মতো বিদেশি সংস্থার কর্তারা জানান, বাংলার উপর তাঁদের আস্থা রয়েছে। তাই বিনিয়োগ হবে এখানেই।
টিটাগড় ওয়াগনস-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর উমেশ চৌধুরী হুগলির উত্তরপাড়ায় অ্যালুমিনিয়ামের মেট্রো কোচ ফ্যাক্টরি গড়ার প্রস্তাব দেন। যেখানে ১ হাজারের এর বেশি মানুষ প্রত্যক্ষভাবে কাজ পাবেন। আগামী পাঁচ বছরে এই প্রকল্পে ২,৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করছেন তাঁরা। শুধু তাই নয়, উমেশ চৌধুরী হাওড়া ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় জাহাজ তৈরির প্রোজেক্টের জন্যও সরকারের কাছে জমি চেয়ে আবেদন করেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি জানান, শালিমারের কাছেই জমি পাওয়া যেতে পারে। তিনি এই বিষয়টি দেখার জন্য পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে দায়িত্ব দেন।
এদিকে অম্বুজা নেওটিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান হর্ষবর্ধন নেওটিয়া দিঘায় একটি পাঁচতারা হোটেল তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন। একশোর বেশি ঘর, ব্যাঙ্কোয়েট হল, সুইমিং পুল, স্পা-য়ের মতো সবরকম আধুনিক সুবিধা থাকা হোটেল দিঘায় পর্যটক টানবে বলে আশাবাদী তিনি। নেওটিয়া বলেন, গত ১০ বছরের মধ্যে দিঘা সমুদ্র সৈকতের আমূল পরিবর্তন হয়েছে। হায়াত হোটেল গ্রুপের তরফেও এসেছে দিঘায় বিনিয়োগের প্রস্তাব।আইটিসি গ্রুপ ইতিমধ্যেই ৪ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে এ রাজ্যে। তাদের নতুন প্রকল্পের জন্য আরও ১,৭০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের কথা দিয়েছে আইটিসি।
বিনিয়োগ ছাড়াও ডব্লিউবিএসইডিসিএল ও জার্মানির কেএফডব্লিউ ব্যাঙ্কের মধ্যে এক মৌ চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী, ৭৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে ১৫০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ প্ল্যান্ট তৈরি হচ্ছে। ডাচ কনসোর্টিয়াম বানতলায় বিনিয়োগ করবে লেদার কমপ্লেক্সের বর্জ্যকে পরিবেশ বান্ধব করার কাজে। অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানান, মোট ৮০ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ হচ্ছে লেদার কমপ্লেক্সে। সব মিলিয়ে বাণিজ্য সম্মেলনের (Bengal Business Conclave) প্রথম দিনেই রাজ্য সরকার বিনিয়োগ টানতে দারুণ সফল হয়েছে।

Comments
Loading...