তৃণমূলে ফেরার রাস্তা বন্ধ, শোভন-বৈশাখীকে তীব্র কটাক্ষ রত্নার, বললেন শিশুসুলভ আচরণ!

বিজেপি ছেড়েছেন। এবার এই ইস্যুতে মুখ খুললেন শোভন চ্যাটার্জির স্ত্রী রত্না চ্যাটার্জি। খোঁচা দিয়ে শোভন-বৈশাখীকে বললেন, ওঁরা শিশুসুলভ আচরণ করছেন। এভাবে রাজনীতি করা যায় না। 

শোভন-বৈশাখীর বিজেপি ত্যাগের পর প্রথম মুখ খুললেন বেহালা পূর্বের তৃণমূল প্রার্থী রত্না চ্যাটার্জি। তিনি বলেন, এটা শিশুসুলভ আচরণ। রাজনীতির আঙ্গিনায় ৪ দশক কাটানোর পর শোভন চ্যাটার্জিকে এসব করা মানায় না। দল যা বলবে সেটা মেনে নেওয়াই তো উচিত! বলেন রত্না। পাশাপাশি যোগ করেন, শুনেছি শোভন বাবু বেহালা পূর্ব থেকে দাঁড়াতে চেয়ে জেদ ধরে বসে আছেন। রত্নার আক্রমণের মুখে ছিলেন শোভনের বান্ধবী বৈশাখী ব্যানার্জিও। স্বামীর বান্ধবীর প্রতি বেহালা পূর্বের তৃণমূল প্রার্থীর কটাক্ষ, টিকিট পাইনি বলে গোঁসা করে যে দল ছাড়ে সে কেমন কর্মী? 

এই প্রসঙ্গে রত্না চ্যাটার্জিকে জিজ্ঞেস করা হয়, শোভন-বৈশাখীর তৃণমূলে ঘর ওয়াপ্সির সম্ভাবনা কতটা? সরাসরি জবাব না দিলেও রত্না চ্যাটার্জির কৌশলী উত্তর, ওঁরা বিজেপিতে গিয়ে যেভাবে মমতা ব্যানার্জিকে অশালীন আক্রমণ করেছিলেন তাতে আবার দলে ফেরা প্রায় অসম্ভব। পাশাপাশি শোভন-বৈশাখীকে রত্নার খোঁচা, আমি দলে থাকলে ওঁরা ফিরবেন না বলেছিলেন। এখন তো আমি প্রার্থী। দল আমাকে বাদও দেবে না। সুতরাং বাকিটা বুঝে নিন। আশা করি ওঁরাও সেটা বোঝেন। অর্থাৎ শোভন-বৈশাখীর তৃণমূলে ফেরার পথ যে কাঁটা বিছানো তাও স্পষ্ট করে দেন শোভন চ্যাটার্জির স্ত্রী।  

এদিকে শোভন-বৈশাখী কী করবেন তা নিয়ে স্পষ্ট কোনও খবর নেই। তাঁরা কি বিজেপিতেই থাকবেন, নাকি নির্দল হয়ে বেহালা পূর্বে লড়বেন শোভন? উত্তর অধরা।

Comments
Loading...