২ মে তৃণমূলের গুন্ডাদের জেলে পোরা হবে! পঞ্চায়েত ভোট টেনে তৃণমূলকে আক্রমণ স্মৃতির

মমতা ব্যানার্জি ভয় পেয়ে ভবানীপুর ছেড়ে নন্দীগ্রামে গিয়েছেন। নন্দীগ্রামেও হারছেন মমতা দিদি, দাবি স্মৃতি ইরানির

পর পর দু’দিন বাংলায় সভা করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। মঙ্গলবার বিজেপি প্রার্থী গৌতম রায়ের সমর্থনে মুর্শিদাবাদের কান্দি থেকে সুর চড়িয়ে বললেন, ২ মে ভোটের ফলাফল। জিতছে বিজেপি-ই। সে দিনই তৃণমূল-আশ্রিত গুন্ডাদের জেলে পোরা হবে।

মঙ্গলবার সপ্তম দফার ভোট প্রচারে পরপর তিনটি সভা করেন স্মৃতি ইরানি। তিনটি সভা থেকেই ঝরঝরে বাংলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে খোঁচা দিয়ে স্মৃতি বলেন, তৃণমূলের এক নেতা বিজেপি কর্মীদের মারধরের হুমকি দিয়েছেন। তৃণমূল গুন্ডারা পঞ্চায়েত লুঠ করেছিল। ২ মের পর একটা একটা করে তৃণমূলের গুন্ডাদের জেলে ঢোকানো হবে।

কান্দির সভায় বাম-তৃণমূলকে এক বাক্যে আক্রমণ করে বললেন, দিদি বলেছিলেন, পরিবর্তন হবে! বামপন্থীদের দুর্নীতি এখন তৃণমূলের কাটমানিতে পরিণত হয়েছে। দিদি বলেছিলেন, পরিবর্তন হবে। বামপন্থীদের হিংসা এখন তৃণমূলের হিংসায় পরিণত হয়েছে। এই হল পরিবর্তন!

মমতা ব্যানার্জি ভয় পেয়ে ভবানীপুর ছেড়ে নন্দীগ্রামে গিয়েছেন। নন্দীগ্রামেও হারছেন মমতা দিদি, দাবি স্মৃতি ইরানির।

স্মৃতি ইরানি প্রথম সভা করেন পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে। উপস্থিত ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। এরপর কুলটিতে প্রার্থী অজয় পোদ্দারের সমর্থনে সভা। শেষে বিকেলে কান্দির বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে সভা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।

Comments
Loading...