আলিপুরদুয়ারে চা বাগানে বাড়ি বাড়ি হিন্দিতে লিফলেট বিলি তৃণমূলের, ভোট পুনরুদ্ধারে ব্যাপক প্রচার

বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের কাজ শুরু করে দিল তৃণমূল

উত্তরবঙ্গের চা বাগান এলাকার জন্য পৃথক প্রচার কর্মসূচি শুরু করল তৃণমূল। তৃণমূলের আলিপুরদুয়ারের পর্যবেক্ষক ঋতব্রত ব্যানার্জির সঙ্গে স্থানীয় আদিবাসী নেতৃত্ব বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝাচ্ছেন মমতা সরকারের আমলে হওয়া উন্নয়নের বৃত্তান্ত। বাসিন্দাদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে হিন্দিতে লেখা ৪ লিফলেট। তার মধ্যে রয়েছে একটি ক্যালেন্ডারও।

চা সুন্দরী প্রকল্প বা বিরসার জন্মদিনে সরকারি ছুটি, চা শ্রমিক তথা আদিবাসী সম্প্রদায়ের জন্য মমতা ব্যানার্জির সরকার নিয়েছে একাধিক উদ্যোগ। ন্যূনতম মজুরি বৃদ্ধি, চা বাগানে কৃষি কর ছাড়, বিনামূল্যে রেশন সহ একগুচ্ছ পদক্ষেপ নিয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে এবার আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ির চা বাগান এলাকায় ব্যাপক প্রচার শুরু করে দিল তৃণমূল। 

মূলত হিন্দিতে লেখা চারটি লিফলেট পৌঁছে দিচ্ছেন পাসাং লামা, রাজেশ লাকরা, প্রকাশ চিক বরাইক, জয়প্রকাশ টোপ্পো, লুইস কুজরের নেতৃত্বে তৃণমূলের দল। রাজ্য স্তরে এই কর্মসূচির দেখভাল করছেন শ্রমমন্ত্রী তথা সিনিয়ার তৃণমূল নেতা মলয় ঘটক। লিফলেটে রয়েছে চা শ্রমিকদের জন্য চা সুন্দরী প্রকল্পের খতিয়ান, বিনামূল্যে রেশন সংক্রান্ত ঘোষণা, কৃষি কর মকুবের বিজ্ঞপ্তি সহ একগুচ্ছ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বর্ণনা। এই চার লিফলেট মানুষের হাতে হাতে তুলে দেওয়ার পাশাপাশি ঋতব্রত, পাসাং লামা, প্রকাশ চিক বরাইক, জয়প্রকাশ টোপ্পো, রাজেশ লাকরা, লুইস কুজররা নিয়ম করে বোঝাচ্ছেন কী কী কাজের সুফল পাওয়া সম্ভব। 

লোকসভা ভোটে ভরাডুবির পর উত্তরবঙ্গের তরাই-ডুয়ার্স নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনা তৈরি করে তৃণমূল। আলিপুরদুয়ারের দায়িত্ব দিয়ে পাঠানো হয় ঋতব্রত ব্যানার্জিকে। দীর্ঘদিন চা বাগান এলাকায় তৃণমূলের চা শ্রমিক সংগঠনের দেখভাল করেন ঋতব্রত। করেছেন একাধিক গেট মিটিং। সম্প্রতি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন আদিবাসী নেতা রাজেশ লাকরা ওরফে টাইগার, কুমারগ্রামের আদিবাসী নেতা লুইস কুজুর প্রমুখ। এবার ভোটের মুখে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের কাজ শুরু করে দিল তৃণমূল, সঙ্গে হিন্দিতে লেখা লিফলেট। মানুষের সমস্যা শোনার পাশাপাশি স্বাস্থ্য সাথী, চা সুন্দরী, ফ্রি রেশন সহ একাধিক প্রকল্পের বিশদ বিবরণ দিচ্ছেন তৃণমূল নেতারা। 

তৃণমূলের আলিপুরদুয়ারের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা ঋতব্রত ব্যানার্জি বলছেন, আমাদের লক্ষ্য ৭৫ হাজার বাড়িতে পৌঁছনো। প্রতি বাড়িতে গিয়ে এই চারটি লিফলেট তুলে দিচ্ছি তারপর প্রতিটি প্রকল্প সম্পর্কে বিশদ আলোচনা। মানুষ যাতে সহজে বুঝতে পারেন সেজন্য হিন্দিতে লেখা হয়েছে লিফলেট। এর মধ্যে মানুষের কোনও প্রশ্ন থাকলে তারও উত্তর দেওয়া হচ্ছে। তাঁর আশা চা শ্রমিকদের উন্নয়নে মমতা সরকারের এই ৪ পদক্ষেপ তাঁদের ভোট বাক্স ভরে দেবে।   

Comments
Loading...