কালনা দলবদল: তৃণমূলের বিশ্বজিত বিজেপিতে, ক্ষোভে তৃণমূলে বিজেপির নিউটন!

দল বদল নিয়ে কালনায় মহা নাটক!

কালনার তৃণমূল বিধায়ক ক’দিন আগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর বিশ্বজিত কুণ্ডুর বিজেপিতে যোগদানে ক্ষুব্ধ কালনার বিজেপি নেতৃত্ব। শুক্রবার তৃণমূল ভবনে এসে ঘাসফুল পতাকা তুলে নিলেন কালনার বিজেপি নেতা নিউটন মজুমদার। 

রাজনীতির দলবদলের মরসুমে, দলে থেকে কাজ করতে পারছি না এই ধুয়ো তুলে অনেকেই দল বদল করছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন কালনার তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বজিত কুণ্ডু। কিন্তু বিতর্কিত এই বিধায়কের বিজেপিতে যোগদানের ক’দিনের মধ্যেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন ২০১৬ সালে বিজেপির টিকিটে বিশ্বজিত কুণ্ডুর বিরুদ্ধে লড়াই করা নিউটন মজুমদার।

২০১১ সালের পর ২০১৬ সালেও কালনা থেকে জেতেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বিশ্বজিত। পরবর্তীতে নানা বিতর্কে জড়িয়েছেন। টেট পরীক্ষায় বিধায়কের বাড়ির লোকজনকেই কেবল চাকরি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। তৃণমূলের অন্দরেই তাঁকে টেটশ্রী নামেও ডাকা হতে থাকে। এহেন বিশ্বজিত কুণ্ডু সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর তাঁর যোগদানের সঙ্গে সঙ্গেই ক্ষোভ ছড়িয়ে পরে কালনার বিজেপি নেতা কর্মীদের মধ্যে। তাঁরা দাবি করতে থাকেন, যাঁর দুর্নীতির বিরুদ্ধে এতদিন লড়াই চালালাম আজ তিনি আমাদের নেতা হয়ে গেলেন! 

রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য বিশ্বজিত কুণ্ডু শুধু নিজের বিধানসভা এলাকায় না, নিজের ওয়ার্ডেও পিছিয়ে আছেন। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে নানা দুর্নীতির অভিযোগ। তাই এবার টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা প্রায় ছিলই না। 

এদিকে দল বদলে বিজেপিতে যাওয়ায় পাল্টা কালনা এলাকার দীর্ঘদিনের বিজেপি নেতা নিউটন মজুমদার ক্ষোভ উগরে দিয়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য, তৃণমূলের দুর্নীতিবাজদের দলে নিয়ে চোরের বাংলা বানানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। তাই বীতশ্রদ্ধ হয়ে মমতা ব্যানার্জির পাশে থাকার সিদ্ধান্ত নিলেন। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে বিজেপি প্রার্থী নিউটন মজুমদার হেরেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী বিশ্বজিত কুণ্ডুর কাছে। আবারও একটা বিধানসভা ভোট আসছে। এবার বিজেপিতে তৃণমূলের বিশ্বজিত আর বিজেপির নিউটন তৃণমূলে।

Comments
Loading...