সমীক্ষায় গিয়ে ত্রিপুরায় আটক আইপ্যাকের ২৩ সদস্য; ট্যুইটারে কড়া প্রতিক্রিয়া অভিষেকের

সোমবার প্রতিবেশী রাজ্য ত্রিপুরায় ভোটের সমীক্ষা করতে গিয়ে আটক আইপ্যাকের ২৩ জন সদস্য। ত্রিপুরা পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ, টিম পিকের ২৩ সদস্যকে রবিবার রাত থেকে হোটেলে কার্যত বন্দি করে রেখেছে স্থানীয় পুলিশ।

এই ঘটনায় ট্যুইটারে কড়া প্রতিক্রিয়া জানালেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি। বিজেপিকে উদ্দেশ্যে করে অভিষেকের কটাক্ষ, ত্রিপুরার মাটিতে পা দেওয়ার আগেই তৃণমূলকে ওরা ভয় পেয়েছে।

তৃণমূল সাংসদের দাবি, বাংলায় আমাদের জয় দেখে বিজেপির এতটাই টালমাটাল অবস্থা যে, আইপ্যাকের ২৩ জন সদস্যকে সেখানকার সরকার হাউস এরেস্ট করে রেখেছে।

এখানেই থামেননি ডায়মন্ড হারবারে সাংসদ। গেরুয়া শিবিরকে তাঁর তীব্র আক্রমণ, বিজেপির অপশাসনের জেরে দেশে বার বার গণতন্ত্রের হত্যা হচ্ছে।

উল্লেখ্য ২০২৩ ত্রিপুরায় বিধানসভা ভোট। বাংলার পর ত্রিপুরাই তৃণমূলের অন্যতম শক্ত ঘাঁটি। এ রাজ্যের মত সেখানেও ভোটের রণকৌশল নির্ধারণের দায়িত্বে রয়েছে আইপ্যাক। সেই কাজেই প্রাথমিক সমীক্ষার জন্য ত্রিপুরায় পৌঁছেছে আইপ্যাকের ২৩ জন সদস্য। আগরতলার উডল্যান্ড পার্ক নামে একটি হোটেলে ওঠেন তাঁরা।

ত্রিপুরার স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, তল্লাশির নামে ২৩ জন সদস্যকে হেনস্থা করেছে আগরতলার পুলিশ। রুটিন তল্লাশির নামে সারাদিন ওঁদের হোটেলে আটকে রাখা হয়েছে। এই আচরণে স্পষ্ট, বিজেপি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

এদিকে স্থানীয় পুলিশের দাবি, অতিমারীর জেরে বাইরে থেকে কেউ এলে তাঁদের সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ্যে ঘোরার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত।

প্রসঙ্গত এর আগে ২১ জুলাইয়ের কর্মসূচি পালন করতে গিয়েও আগরতলার পুলিশের হাতে একাধিক তৃণমূলকর্মী সমর্থক আটক হন। সেবারেও ট্যুইটে বিপ্লব দেবের সরকারের তীব্র সমালোচনায় সরব হয়েছিলেন অভিষেক ব্যানার্জি।

Comments
Loading...