বিধায়করা বেশি কথা বললে দেশদ্রোহীতায় ফেঁসে যাবে! মন্তব্য যোগী রাজ্যের BJP বিধায়কের

বিজেপি বিধায়ক রাকেশ রাঠোরের মুখে দেশদ্রোহী আশঙ্কার কথা

করোনা মোকাবিলায় উত্তরপ্রদেশ সরকার কতটা সক্রিয়, তা নিয়ে ফের প্রশ্ন উঠল। রাজ্যে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে সীতাপুরের বিজেপি বিধায়ক রাকেশ রাঠোরকে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, যদি বেশি কথা বলি, তবে দেশদ্রোহীতার অভিযোগ উঠবে আমার বিরুদ্ধে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় বিধায়ক রাকেশ রাঠোরকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কেন বাড়তে থাকা করোনা সংক্রমণ এবং করোনা বেড বাড়ানোর বিষয়ে সরকার উদাসীন? কেন নতুন কোভিড কেয়ার সেন্টার খোলার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছেন না? উত্তরে রাকেশ জানান, বিধায়কদের মর্যাদা কতটা? আমরা বিধায়করা যদি বেশি কথা বলি, তবে আমাদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার অভিযোগ আনা হবে।

রাজ্যে যখন করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। সেই পরিস্থিতিতে লকডাউন কেন কঠোরভাবে মানা হচ্ছে না? প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সবকিছুই তো ঠিকঠাক চলছে। এর চেয়ে ভাল কিছু আর হতে পারে না। আমি তো সরকার নই। তবে সরকার কতটুকু ঠিক বলেছে তা বিবেচনার জন্য তো আপনারা রয়েছেন।

যখন তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, তিনি বিধায়ক হয়েও দেশদ্রোহীতার অভিযোগের অংশীদার হবেন কেন? তখন তিনি জানান, সরকার ভাবছে কেউ কেউ কথা বলেছে। তাই সরকারের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তোলার অধিকার বিধায়কদের নেই।

আগের বছর রাঠোর এবং অন্য এক বিজেপি নেতার মধ্যে ফোনে কথোপকথনের অডিও ফুটেজ স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। সেখানে রাকেশকে করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শোনা যায়। এবার সেই রাকেশের মুখে দেশদ্রোহী আশঙ্কা।

Comments
Loading...