আমেরিকায় বসবাসকারী এইচ ৪ ভিসাধারীদের পারমিট তিন মাসে বন্ধ হতে পারে, বিপদে ভারতীয়রা

এইচ ৪ ভিসা নিয়ে যাঁরা আমেরিকায় বসবাস করছেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে তাঁদের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করতে পারে মার্কিন প্রশাসন। এর ফলে আমেরিকা ছাড়তে হতে পারে বহু বিদেশি নাগরিককে। জানা গেছে, ট্রাম্প প্রশাসন মার্কিন ফেডেরাল কোর্টে সম্প্রতি জানিয়েছে, যাঁরা এইচ ৪ ভিসা নিয়ে বর্তমানে আমেরিকায় রয়েছেন তাঁদের ভিসার ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। সূত্রের খবর, আগামী তিন মাসের মধ্যে বিষয়টি কার্যকর করতে পারে মার্কিন প্রশাসন। বিষয়টি যদি বাস্তবায়িত হয় তাহলে অনেক বিদেশি নাগরিককে মার্কিন মুলুকে থাকার বৈধতা আর থাকবে না, যাঁর মধ্যে প্রচুর ভারতীয় নাগরিকও রয়েছেন। ফলে তাঁদের দেশে ফিরতে হতে পারে।
ইউএস সিটিজেন অ্যান্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিসেস-এর তরফে এই এইচ ৪ ভিসা ইস্যু করা হয়ে থাকে। এই ভিসা পারমিটের আওতায় যদি কোনও বিদেশি নাগরিক মার্কিন মুলুকে কাজ করেন, তাহলে তাঁর স্ত্রী বা স্বামী এবং তাঁদের ২১ বছরের কম বয়সী সন্তান আমেরিকায় বসবাসের সুযোগ পান। নির্দিষ্ট সময় অন্তর এই ভিসা রিনিউ করাতে হয়। ২০১৫ সালে বারাক ওবামা জমানায় এই নিয়ম চালু হয়েছিল। বর্তমানে এইচ ওয়ান বি ভিসা নিয়ে আলোচনা চলছে ট্রাম্প প্রশাসনের অন্দরে, যাতে এই ভিসা দেওয়ার নিয়মে রাশ টেনে বিদেশি নাগরিকদের, বিশেষ করে তথ্য প্রযুক্তি কর্মীদের মার্কিন মুলুকে কাজ করতে যাওয়ার প্রবণতা কিছুটা আটকানো যায়। ট্রাম্প প্রশাসনের ধারণা, এর ফলে মার্কিনীদের নিজের দেশে কাজের সুযোগ বাড়বে, বিদেশিরা আর তাঁদের থেকে কাজ ছিনিয়ে নিতে পারবে না। মনে করা হচ্ছে, এইচ ওয়ান বি ভিসার পাশাপাশি এবার এইচ ৪ ভিসা নিয়েও সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে মার্কিন প্রশাসন। এই ভিসায় বদল ঘটিয়ে নয়া কী নিয়ম আনা হয় তাই দেখার।
জানা গেছে এই মুহূর্তে মার্কিন মুলুকে যতজন এইচ ৪ ভিসাধারী রয়েছেন, তার মধ্যে ৯৪ শতাংশই ভারতীয়। ৪ শতাংশ চিনা। ও বাকি ২ শতাংশ নাগরিক বিশ্বের অন্যান্য দেশের। ফলে এই ভিসা বাতিল হলে তার সবচেয়ে বেশি প্রভাব যে ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি কর্মীদের পরিবারের উপরেই পড়বে তা বলা বাহুল্য।

Comments
Loading...