সরকার-প্রশাসন নয়, মহিলাদের সংস্কারই পারে ধর্ষণ রুখতে, বিজেপি বিধায়কের নয়া তত্ত্ব

উত্তর প্রদেশের হাথরস ধর্ষণকাণ্ড নিয়ে সারা দেশ তোলপাড়। তার পরে যোগী রাজ্যেরই ভাদোহীতে আর এক ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে ধর্ষণ ঠেকাতে উত্তর প্রদেশের এক বিজেপি বিধায়কের ‘তত্ত্ব’ ঘিরে তৈরি হল নয়া বিতর্ক। বালিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিংহের মতে, প্রশাসন নয়, বাবা, মায়েরা তাঁদের মেয়েদের সুসংস্কারের শিক্ষা দিলেই ধর্ষণ কমবে সমাজে।

হাথরস কাণ্ডে নিজের অভিমত ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শনিবার বালিয়ার ওই বিজেপি বিধায়ক বলেন, ধর্ষণের মতো ঘটনা রুখতে পারে কেবল সংস্কার। তাঁর কথায়, ‘বিধায়ক হওয়ার পাশাপাশি আমি একজন শিক্ষক। এ ধরনের (ধর্ষণ) ঘটনা আটকাতে দরকার সংস্কার, শুধু শাসন এবং তলোয়ার দিয়ে এসব থামবে না।’ তিনি আরও বলেন, সব বাবা, মায়ের কর্তব্য তাঁদের যুবতী মেয়েকে একটা সংস্কারী পরিবেশে মধ্যে শালীন ব্যবহারের শিক্ষা দেওয়া। সরকারের ধর্ম যদি হয় সুরক্ষা দেওয়া, পরিবারের ধর্ম তাদের সন্তানদের সুশিক্ষা, মূল্যবোধ শেখানো। সরকার এবং মূল্যবোধের যোগফলেই দেশ সুন্দর হতে পারে, মন্তব্য ওই বিজেপি বিধায়কের।

এর আগেও একাধিক মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিংহ। কখনও তিনি বলেছেন, মহাত্মা গান্ধীকে হত্যা করে কোনও ভুল করেনি নাথুরাম গডসে, কখনও বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ‘নিষ্ঠুর মহিলা’ বলে আক্রমণ করেছেন। এবারও ধর্ষণের মতো নৃশংস ঘটনায় ধর্ষকদের নয়, তিনি দায়ী করলেন মেয়েদের সংস্কার এবং শিক্ষাদীক্ষাকে। স্বভাবতই বিজেপি বিধায়কের এই মন্তব্যে নিন্দার ঝড় বইতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে।

 

Comments
Loading...