বন্দে ভারত এক্সপ্রেসে সুরক্ষায় সমঝোতা? দুর্নীতির অভিযোগে ট্রেন ১৮ এর মুখ্য আর্কিটেক্টকে কম গুরুত্বপূর্ণ পদে পাঠানো হল

সুরক্ষা নিয়ে সমঝোতা এবং বেআইনিভাবে একটি সংস্থাকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ট্রেন ১৮ এর মুখ্য আর্কিটেক্ট শুভ্রাংশুর বিরুদ্ধে। সেখান থেকে ছাড় পেলেও নতুন এক মামলার প্রেক্ষিতে তাঁকে বদলি করা হল কম গুরুত্বপূর্ণ পদে।

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে দিল্লি থেকে বারাণসীর মধ্যে ভারতের প্রথম দ্রুত গতির ইঞ্জিনবিহীন ট্রেন, বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ওরফে ‘ট্রেন ১৮’ এর যাত্রা শুরু হয়। ট্রেন ১৮’এর মুখ্য আর্কিটেক্ট ছিলেন শুভ্রাংশু। সেই ট্রেনের সুরক্ষা নিয়ে সমঝোতায় অভিযুক্ত রেল হুইল প্ল্যান্টের চিফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার, রেলওয়ে বোর্ড পদ থেকে শুভ্রাংশুকে সরিয়ে এখন পূর্ব-মধ্য রেলওয়ের কম গুরুত্বপূর্ণ পদে পাঠানো হয়েছে।

ট্রেন ১৮ এর সুরক্ষার বিষয়ে সমঝোতা এবং একটি সংস্থাকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে শুভ্রাংশু সহ বেশ কয়েকজন রেলকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছিল। এর আগে শুভ্রাংশু চেন্নাইয়ের ইন্টিগ্রাল কোচ ফ্যাক্টরিতে একদল প্রশিক্ষিত ইঞ্জিনিয়রকে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন। এঁরা সবাই দেশের প্রথম সেমি-হাইস্পিড ট্রেনের নকশা ও প্রস্তুতিতে যুক্ত ছিলেন। সেখান থেকে পরে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল শুভ্রাংশুকে। সূত্রের খবর, সম্প্রতি কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশন শুভ্রাংশু এবং অন্যান্যদের বিরুদ্ধে ভিজিল্যান্স মামলা বাতিল করার পরেও রেল বোর্ডের ভিজিল্যান্স অধিদফতর শুভ্রাংশুর বিরুদ্ধে মঙ্গলবার একটি নতুন মামলা শুরু করেছে। পরের দিনই ইন্ডিয়ান রেলওয়ে সার্ভিস অফ মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ার্স (আইআরএসএমই) এর ১৯৮৩ ব্যাচের অফিসারকে, পূর্ব মধ্য রেলের অন্তর্গত হাজিপুরের চিফ মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ার, প্ল্যানিং পদে নিযুক্ত করা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, জুনিয়র অফিসারের অধীনে এখন কাজ করতে হচ্ছে ট্রেন ১৮ এর আর্কিটেক্ট শুভ্রাংশুকে।

Comments
Loading...