করোনা মোকাবিলায় বাংলাকে স্বীকৃতি রাষ্ট্রসংঘের, বিশেষ সম্মান রোগী কল্যান সমিতির সভাপতি ডাঃ নির্মল মাজিকে

করোনা মোকাবিলায় বাংলার কাজের ঢালাও প্রসংসা আন্তর্জাতিক মহলে, রাষ্ট্রসংঘ অনুদিত সংস্থার বিশেষ সম্মান মন্ত্রী ডাঃ নির্মল মাজিকে

করোনা মোকাবিলায় মমতার সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করল রাষ্ট্রসংঘ অনুমোদিত এক সংস্থা। জাপানে অবস্থিত ইউনাইটেড নেশন ওয়ার্ল্ড পিস অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার ই-মেইল মারফত প্রশংসাবার্তা পাঠানো হয়েছে। তাতে জানানো হয় করোনা যোদ্ধা হিসেবে আন্তর্জাতিক সম্মান পাচ্ছেন রোগী কল্যান সমিতির সভাপতি, মন্ত্রী ও চিকিৎসক নির্মল মাজি। জানা গিয়েছে, নির্মল মাজির কাছে শীঘ্রই পৌঁছে দেওয়া হবে শংসাপত্র এবং মেডেল।

রাজ্যের মন্ত্রী ডাঃ নির্মল মার্জিকে পাঠানো ওই চিঠিতে রাষ্ট্রসঙ্ঘের শান্তি পরিষদের তরফে লেখা হয়েছে, ‘আমাদের প্রতিনিধি মারফত আমরা পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং আপনার বিষয়ে জানতে পেরেছি। করোনা পরিস্থিতিতে আপনাদের মানবদরদী মুখ্যমন্ত্রীর দারুণ কৃতিত্বের কথাও জেনেছি। মানবজাতি আপনাদের নিরাপদ হাতে রয়েছে। তাই কৃতজ্ঞতা এবং প্রশংসার প্রতীক হিসেবে আপনাদের একটি শংসাপত্র তুলে দিতে পেরে আমরা গর্বিত।’ বিশ্বব্যাপী অতিমারির মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকার যেভাবে মানবদরদী ভাবমূর্তি নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, রাষ্ট্রসঙ্ঘের তরফে পাঠানো ‘সিম্বল অফ গ্র্যাটিটিউড’ শংসাপত্রে তারই ভূয়সী প্রশংসা করা হয়েছে।

শুধু তাই নয়, ইউনাইটেড নেশন ওয়ার্ল্ড পিস অ্যাসোসিয়েশনের তরফে রাজ্যের প্রতিনিধিদেরও জাপানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়ে স্বাভাবিকভাবেই আনন্দিত রোগী কল্যান সমিতির সভাপতি নির্মল মাজি। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সততা এবং দায়বদ্ধতার কাজে আমি একজন সৈনিক মাত্র। করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে সাহায্য করতে প্রায় ১৮ ঘণ্টা বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরে বেড়িয়েছেন বলে জানান চিকিৎসক মাজি। সরকারি ক্ষেত্রে কীভাবে মানুষকে ভাল পরিষেবা দেওয়া যায় সেই দিকে খেয়াল রেখেছেন। এই সম্মান তাই তাঁর ‘পথপ্রদর্শক’ মমতাকে উৎসর্গ করছেন বলে জানান ডাঃ নির্মল মাজি।

 

Comments
Loading...