ছররা গুলিতেই মৃত্যু বিজেপি কর্মীর, পুলিশ শট গান ব্যবহার করে না, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট উল্লেখ করে ট্যুইট পুলিশের

বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানে উলেন রায় নামে এক সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে মিছিলে অংশ নেওয়া কোনও বিক্ষোভকারীর চালানো শটগানের গুলিতে। এই মৃত্যুর জন্য পুলিশ দায়ী নয়। মঙ্গলবার দাবি করল রাজ্য পুলিশ। এদিন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের অফিশিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে জানানো হয়েছে, সংশ্লিষ্ট ঘটনার তদন্তভার নিচ্ছে সিআইডি।

সোমবার বিজেপি যুব মোর্চার উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে তুলকালাম পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পুলিশ ও বিজেপি কর্মীদের খণ্ডযুদ্ধ বাধে দফায় দফায়। এই প্রেক্ষিতে এক ব্যক্তির মৃত্যু ঘিরে পুলিশের দিকে আঙুল তোলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও দিলীপ ঘোষের মতো বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। কেউ দাবি করেন পুলিশের লাঠিতে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির। আবার কেউ অভিযোগ করেন পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাসের শেল এসে বুকে বিঁধে যাওয়ায় মৃত্যু হয়। পুলিশ জানিয়েছিল ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে।  

মঙ্গলবার পুলিশের দাবি পোস্টমর্টেম রিপোর্ট থেকে স্পষ্ট ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে শটগানের গুলি লেগে। এবং তা খুব সামনে থেকে চালানো হয়েছে। 

উত্তরকন্যা অভিযানে পুলিশ জল কামান ও কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়লেও অস্ত্র ব্যবহারের ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করা হয়েছে। পুলিশ শটগান ব্যবহার করে না। ট্যুইটে আরও বলা হয়, প্রতিবাদ মিছিলে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে হাজির হওয়া অভূতপূর্ব। তদন্তে নেমেছে সিআইডি।

তবে বিজেপি অবশ্য পুলিশের যুক্তি মানতে নারাজ। বিজেপি নেতা  সায়ন্তন বসু সিবিআই তদন্তের দাবি তুলেছেন। দিলীপ ঘোষের অভিযোগ নন্দীগ্রামের কায়দায় পুলিশের ভিড়ে মিশে ছিল তৃণমূলের দুষ্কৃতিরা। তারাই দেশি বোমা ও পেলেট গান চালিয়েছে। তৃণমূল বিজেপির অভিযোগ উড়িয়ে পাল্টা দাবি করেছে, অশান্তি বাধিয়ে প্রচারের লোভে বিজেপি নিজেরাই নিজেদের কর্মীকে ছররা গুলি ছুঁড়ে মেরেছে।

Comments
Loading...