উন্নাওয়ের নির্যাতিতাকে ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ, কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের নির্দেশ, দেশে চলছে কী? প্রশ্ন ক্ষুব্ধ প্রধান বিচারপতির

দেশে কী চলছে? উন্নাও মামলার শুনানিতে প্রশ্ন ক্ষুব্ধ প্রধান বিচারপতির। উন্নাওয়ের নির্যাতিতা তরুণীকে শুক্রবারের মধ্যে ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে উত্তর প্রদেশ সরকারকে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের। রায়বেরিলিতে গাড়ি দুর্ঘটনার চার্জশিট জমা দিতে হবে ৭ দিনের মধ্যে, ৪৫ দিনের মধ্যে আদালতে পেশ করতে হবে ধর্ষণ মামলার চার্জশিট, নির্দেশ দিলেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। তরুণী ও তাঁর পরিবারের নিরাপত্তার খাতিরে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনেরও নির্দেশ।
গত রবিবার রায়বরেলিতে উন্নাওয়ের নির্যাতিতা তরুণীর গাড়ির সঙ্গে সংঘর্ষ হয় একটি ট্রাকের। ঘটনাস্থলেই মৃ্ত্যু হয় তরুণীর কাকিমা এবং মাসির। আশঙ্কাজনক অবস্থায় লখনউয়ের কিং জর্জ হাসপাতালে ভর্তি নির্যাতিতা ও তাঁর আইনজীবী। অভিযোগ ওঠে ধর্ষণে অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়কের ষড়যন্ত্রেই এই দুর্ঘটনা।
বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানির শুরুতেই জোর ধাক্কা খায় উত্তর প্রদেশের যোগী সরকার। দুর্ঘটনার তদন্তের কাজ সিবিআইকে ৭ দিনের মধ্যে শেষ করতে হবে। সেইসঙ্গে বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সিংহ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে লখনউয়ের আদালতে যে চারটি মামলা চলছে তা দিল্লির আদালতে স্থানান্তরিত করার নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি। এরপরেই আদালতের নির্দেশ, তরুণী ও তাঁর পরিবারের সুরক্ষার জন্য সিআরপিএফ নিয়োগ করতে হবে। পাশাপাশি ২৪ ঘন্টার মধ্যে তরুণীর পরিবারের কাছে ২৫ লক্ষ টাকা পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় উত্তর প্রদেশ সরকারকে।
বৃহস্পতিবার মামলার শুনানিতে সলিসেটার জেনারেল তুষার মেহেতা জানিয়েছিলেন, এই মুহূর্তে উন্নাও মামলার তদন্তকারী সিবিআই অফিসাররা দিল্লির বাইরে রয়েছেন। তাই এবিষয়ে শুক্রবার সিদ্ধান্ত নিক শীর্ষ আদালত। সেই আবেদন উড়িয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, সিবিআই প্রধান চাইলে ফোনে মামলার হাল জেনে নিতেই পারতেন। রবিবারের দুর্ঘটনার তদন্তের জন্য সিবিআইকে ৩০ দিন সময় দেওয়ারও যে আবেদন করেন সলিসেটার জেনারেল, তাও খারিজ করে দেয় শীর্ষ আদালত। জানিয়ে দেয় ৭ দিনের মধ্যে চার্জশিট জমা করতে হবে। শুধু তাই নয়, শীর্ষ আদালতের নির্দেশ, ২০১৭ সাল থেকে বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে যে ধর্ষণের মামলা চলছে, ৪৫ দিনের মধ্যে তার চার্জশিট পেশ করতে হবে।
উন্নাওয়ের নির্যাতিতা তরুণী এখন লখনউয়ের হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। তাঁকে দিল্লির এইমসে সরিয়ে আনার কথাও বলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি। বৃহস্পতিবার সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতার কাছে তরুণীর শারীরিক অবস্থা সম্বন্ধে খোঁজখবর নেন প্রধান বিচারপতি। সলিসিটার জেনারেল তাঁকে জানান, নির্যাতিতার শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। এরপর প্রধান বিচারপতি বলেন, তরুণী ও তাঁর আইনজীবীকে আজই দিল্লির এইমসে স্থানান্তরিত করা হোক।

 

Comments
Loading...