পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা নন্দীগ্রামের গণনা এগোল কোন পথ ধরে?

দিনভর ধোঁয়াশা। অবশেষে ফল ঘোষণা রাতে। বাংলায় জয় এসেছে। কিন্তু হটসিট নন্দীগ্রামে পরাজিত মমতা ব্যানার্জি। গণনার দিন সকাল থেকে টানটান উত্তেজনার পর মধ্য রাতে জানা যায় জয়ী হয়েছেন বিজেপির শুভেন্দু অধিকারী। ১৭ রাউন্ড গণনার শেষে জানা যায় ১,৯০০ ভোটে জয়ী হয়েছেন শুভেন্দু।

কিন্তু জানেন কি পরতে পরতে কেমন উত্তেজনা ছিল গণনার সময়? কীভাবে পেন্ডুলামের মতো দুলছিল মমতা-শুভেন্দু যুদ্ধের পরিণাম? আসুন ঘড়ি ধরে ফিরে দেখা যাক, নন্দীগ্রামের হাইভোল্টেজ ভোট গণনা।

দুপুর ৩
হাইভোল্টেজ কেন্দ্রে টানটান লড়াইয়ের মধ্যে ১২ রাউন্ড গণনার শেষে বিকেল ৩ টের সময় জানা যায়, ১,৪৫৩ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন মমতা ব্যানার্জি।
অথচ ঠিক দু’দফা আগেই শুভেন্দু এগিয়ে ছিলেন ১ হাজার ভোটে।

বিকেল ৫
সংবাদ সংস্থা এএনআই জানায় নন্দীগ্রামে জয়ী হয়েছেন মমতা ব্যানার্জি।

কিছুক্ষণের মধ্যেই জানা যায় গণনা এখনও চলছে। চূড়ান্ত ফল এখনও ঘোষণা হয়নি। চারদিকে চরম বিভ্রান্তি। নন্দীগ্রামে কে জিতেছেন তা নিয়ে ফের তৈরী হয় মহা ধোঁয়াশা।

তখন বিকেল ৫ টা বেজে গিয়েছে, কালীঘাটের বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন মমতা ব্যানার্জি। সাংবাদিকদের সামনে তিনি জানান, কোভিড মোকাবিলাই অগ্রাধিকার।

নন্দীগ্রামে তখনও গণনা জারি।
সন্ধে ৬
শেষ রাউন্ডের গণনার সময় দেখা যায় ১,৬২২ ভোটে পিছিয়ে মমতা ব্যানার্জি। সাংবাদিকদের কাছে নন্দীগ্রামে হারের কথা মেনে নেন মমতা। বলেন, নন্দীগ্রামের মানুষের রায় মাথা পেতে নিলাম। আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল বাংলা রক্ষা পেয়েছে। ২২১ টি আসন পেয়ে বাংলা জয় করার কথা তিনি বলেন।

সন্ধে ৭.৩০
মমতা ব্যানার্জিকে ফোন করে অভিনন্দন জানান রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

রাত ৮
বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী নিজেকে জয়ী ঘোষণা করেন। ট্যুইট করেন, নন্দীগ্রামের মানুষকে ভালবাসা, বিশ্বাস, আশীর্বাদ, এবং সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুসারে, শুভেন্দু অধিকারী ১১ রাউন্ড পর্যন্ত এগিয়ে ছিলেন। ১২ রাউন্ডের পর মমতা ব্যানার্জি বিজেপি প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ৬ হাজার ভোটে এগিয়ে ছিলেন। শেষমেশ রাতে দেখা যায় শুভেন্দু অধিকারী ১,৭৩৬ ভোটে জয়ী হয়েছেন। নন্দীগ্রামে মোট ১৭ রাউন্ডের গণনা হয়েছে।
এরই মাঝে কমিশনের সার্ভার বিকল হয়েছিল। সেই সময় কোনও আপডেট পাওয়া যায়নি। মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করেছেন, মেশিন বদলেরও।

তৃণমূলের রিকাউন্টিংয়ের দাবি খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এই ইস্যুতে আদালতে যাচ্ছে তৃণমূল।

Comments
Loading...