ফেসবুকের চেয়ারম্যান পদ থেকে জুকেরবার্গের অপসারণ চাইলেন সংস্থার শেয়ার হোল্ডাররা, ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট’এর খবরে প্রকাশ

এবার কি ফেসবুকে অনিশ্চিত হয়ে পড়ল খোদ মার্ক জুকেরবার্গের ভবিষ্যৎ? দেওয়াল লিখন কিন্তু তেমনই। অন্তত এমনই ইঙ্গিত মিলেছে ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ পত্রিকায় প্রকাশিত এক খবরে। বৃহস্পতিবার ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ পত্রিকায় প্রকাশিত এক খবরে দাবি করা হয়েছে, ফেসবুকের একাধিক অত্যন্ত হাই-প্রোফাইল শেয়ার হোল্ডার সংস্থার চেয়ারম্যান পদ থেকে জুকেরবার্গের অপসারণ চেয়েছেন।
ফেসবুকের ভূমিকা নিয়ে সাম্প্রতিক অতীতে তৈরি হওয়া একাধিক বিতর্ক, বিশেষ করে সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য বেরিয়ে যাওয়া এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ফেসবুককে ব্যবহার করার যে অভিযোগ উঠেছে, তার জেরেই শেয়ার হোল্ডাররা সংস্থার সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে জুকেরবার্গের অপসারণ চাইছেন বলে খবরে প্রকাশ। ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ফেসবুকের শেয়ার হোল্ডাররা ইতিমধ্যেই কর্তপক্ষকে চিঠি দিয়েছেন জুকেরবার্গকে সংস্থার চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে যাওয়ার জন্য।
ফেসবুক নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত ২০১৬ সালে মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময়। সেই সময় অভিযোগ উঠেছিল, ফেসবুক থেকে বহু সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য লিক হয়েছে, যা নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে ব্যবহার করা হয়েছে। এমনকী ব্রেক্সিটের সময়ও এই অভিযোগ উঠেছিল। এই বিতর্ক বহু দূর গড়ায় এবং তার জন্য ফেসবুক সংস্থা মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার ওপর বাড়তি নজর দেবে বলেও জানায়। ফেসবুকের চেয়ারম্যান জুকেরবার্গ নিজে জানিয়েছিলেন, ভবিষ্যতে সাধারণ মানুষের তথ্য সুরক্ষিত থাকবে। কিন্তু সংস্থার শেয়ার হোল্ডাররা জুকেরবার্গের অপসারণ দাবি করায় ফেসবুকের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতার ওপর চাপ তৈরি হল বলে দাবি করেছে ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ পত্রিকা।

Comments
Loading...