বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি সঙ্গত, অমিত শাহের বক্তব্যের সমালোচনায় অভিষেক, ‘রাজ্যবাসীকে কোন সাহসে হুমকি?’

বাংলায় কত বোমা ফ্যাক্টরি আছে, সে তথ্য অমিত শাহের কাছে রয়েছে। কিন্তু অভিবাসী শ্রমিকদের তথ্যের বেলায় বিজেপি সরকার নির্বিকার! সোমবার এমন ভাষাতেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহকে বিঁধলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি।

কয়েকদিন আগেই বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারির পক্ষে সওয়াল করেন অমিত শাহ। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, বঙ্গ বিজেপি নেতারা যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি করছেন, তা সঙ্গত। বাংলার আইন-শৃঙ্খলা ও দুর্নীতি নিয়ে তৃণমূল সরকারকে নিশানা করেন অমিত শাহ। তিনি জানান, বাংলায় আইনের শাসন নেই। জেলায় জেলায় বোমা তৈরির কারখানা গড়ে উঠেছে। বাড়ছে অনুপ্রবেশ। পরিস্থিতি খুব খারাপ। বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা ও কর্মীদের হত্যা করা হচ্ছে। তাদের নামে মিথ্যা মামলা করা হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর মত, ভারতের আর কোনও রাজ্যে এমনটা নেই।

এই প্রেক্ষিতে অমিত শাহকে কটাক্ষ করে সোমবার ট্যুইট করেন অভিষেক। ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ তথা যুব তৃণমূল সভাপতির অভিযোগ, বাংলার সামাজিক সম্প্রীতি নষ্ট করার জন্য রাষ্ট্রপতি শাসনের হুমকি দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, বাংলায় বোমা তৈরির কারখানার তথ্য আছে অমিত শাহের কাছে। কিন্তু দেশের অভিবাসী শ্রমিক সম্পর্কিত তথ্য দেওয়ার বেলায় নির্বিকার হয়ে যায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকার।

এরপরেই অমিত শাহকে নিশানা করে অভিষেকের হুঁশিয়ারি, কোন সাহসে রাষ্ট্রপতি শাসনের নামে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে বাংলার মানুষকে হুমকি দিচ্ছেন? অমিত শাহের ওই মন্তব্যকে ভোটের আগে বিজেপির জঘন্য প্রচার পরিকল্পনা বলে আখ্যা দেন অভিষেক ব্যানার্জি। ট্যুইটের শেষে হ্যাশট্যাগ দিয়ে লেখেন, বেঙ্গল রিজেক্টস তানাশাহ। অর্থাৎ, বাংলা স্বৈরতন্ত্রকে প্রত্যাখ্যান করে।

 

 

Comments
Loading...