অমর চিত্র কথার স্রষ্টাকে ভারতরত্ন দেওয়ার প্রস্তাবের বিরোধিতা করে নিশানায় জহর সরকার, পাশে দাঁড়ালেন অপর্ণা সেন

শিশুদের ভারতীয় সংস্কৃতির বিবিধতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল করিয়েছে অমর চিত্র কথা, এমনই দাবি তুলে অমর চিত্র কথার স্রষ্টা অনন্ত পাইকে মরণোত্তর ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি উঠেছিল। সেই দাবি নিয়েই উত্তাল হয়ে উঠল সোশ্যাল মিডিয়া। প্রস্তাবের বিরোধিতা করে দেশের প্রাক্তন সংস্কৃতি সচিব জহর সরকারের ট্যুইট। জহরের মন্তব্যকে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমর্থন অপর্ণা সেনের।

অমর চিত্র কথার স্রষ্টা অনন্ত পাইকে মরণোত্তর ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি জানিয়ে গত ১৭ ই সেপ্টেম্বর দক্ষিণপন্থী ওয়েব পোর্টাল স্বরাজ্য ম্যাগাজিনে একটি ওপিনিয়ন প্রকাশিত হয়। সেটি লেখেন অরবিন্দন নীলাকান্দন। আঙ্কল পাইয়ের ৯০ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রকাশিত এই প্রতিবেদন নিয়েই ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রসার ভারতীর প্রাক্তন সিইও তথা বাঙালি আইএএস জহর সরকার সেদিনই প্রতিবেদনটি তুলে ধরে, অনন্ত পাইকে মরণোত্তর ভারতরত্ন দেওয়ার তীব্র বিরোধিতা করেন। তিনি লেখেন, বিজেপির স্বরাজ্য ম্যাগাজিন অমর চিত্র কথার অনন্ত পাইকে ভারতরত্ন দেওয়ার প্রস্তাব করেছে। তিনি ভারতীয় ইতিহাস ও সংস্কৃতির নাম দিয়ে আসলে শিশুদের কচি এবং নিরীহ মনে বিষ ঢালার কাজ করেছেন এবং মুসলিম ও দলিতদের প্রতি ব্রাহ্মণ্যবাদী ঘৃণার মনোভাবকেই মান্যতা দিয়েছেন।

১৭ ই সেপ্টেম্বর রাত ৯ টা ৪২ মিনিটে এই ট্যুইট করেন দেশের প্রাক্তন সংস্কৃতি সচিব। সঙ্গে সঙ্গে জহর সরকারকে উদ্দেশ্য করে শুরু হয়ে যায় আক্রমণের বন্যা। অবশ্য মুখ বুজে থাকেননি জহর সরকারও। তাঁকে আক্রমণকারীদের কটাক্ষ করে পাল্টা ট্যুইট করেন প্রসার ভারতীর প্রাক্তন সিইও।

এই প্রেক্ষিতেই ১৯ শে সেপ্টেম্বর প্রাক্তন আইএএস জহর সরকারের ট্যুইটটি ট্যাগ করে, নিজে একটি ট্যুইট করেন এ রাজ্যের জনৈক সাংবাদিক। সেই ট্যুইটে সাংবাদিক লেখেন, আমার ছেলেবেলা জুড়ে একজনও বলেননি যে অমর চিত্র কথা সাম্প্রদায়িক। আর এখানে প্রাক্তন সংস্কৃতি সচিব এবং প্রসার ভারতীর সিইও জহর সরকার হাজির হয়েছেন নিজের তত্ত্ব নিয়ে। কোনওরকম ভ্যালু জাজমেন্টে না গিয়েও বলতে পারি, এটা ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিয়ন্ত্রণকারী সেই বামপন্থী আখ্যান।

২১ শে সেপ্টেম্বর সাংবাদিকের ট্যুইটের উত্তর দেন চিত্র তারকা তথা পরিচালক অপর্ণা সেন। জহর সরকারের পাশে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকের মন্তব্যের সমালোচনা করেন অপর্ণা সেন। তিনি লেখেন, জহর ঠিক বলেছেন। জাতিভেদ প্রথায় বিশ্বাস না করার কথা যদি বামপন্থার শিক্ষা হয়, তাহলে তাতে ভুল কিছুই নেই। অপর্ণা সেনের প্রশ্ন, আমাদের মহাকাব্যগুলোর এত ভালো ভালো অনুবাদ থাকতে কেন অমর চিত্র কথা পড়ব? তারপরই জনৈক সাংবাদিককে তীব্র কটাক্ষ করেন অপর্ণা সেন।

অপর্ণা সেনকে পাল্টা আক্রমণ করে ট্যুইট করেন সেই সাংবাদিক। তবে নিজের বক্তব্যেই অনড় থাকেন অপর্ণা সেন।

কখনও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করা নিয়ে তীক্ষ্ণ ট্যুইট আবার কখনও ভাটপাড়া-বারাকপুরের সন্ত্রাস কবলিত এলাকায় গিয়ে বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা, এনআরএসে গিয়ে আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তারদের পাশে দাঁড়ানো। আবার কখনও গণপিটুনির সংস্কৃতির বিরোধিতা করে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি। দেশ কিংবা রাজ্য, বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাম্প্রতিক সময়ে অপর্ণা সেনের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। বিজেপি বিরোধী মনোভাব গোপনও করেননি কখনও। কিন্তু কোনও রাজনৈতিক দলের সংস্পর্শেই আসেননি এই চিত্র তারকা।
ভারতীয় শিশু মননে অমর চিত্র কথা কমিকসের কুপ্রভাব নিয়ে ট্যুইট করে জহর সরকার তীব্র আক্রমণের মুখে পড়েছেন, তাঁর মন্তব্যকে সমর্থনও জানিয়েছেন অনেকে। এই প্রেক্ষিতে বর্ষীয়ান আইএএসের সমর্থনে খোলাখুলি দাঁড়ালেন অপর্ণা সেন।

Comments
Loading...