এক দশকে সবচেয়ে কম বেতন বৃদ্ধি ২০২০ সালে, উঠে এল এওন পিএলসি-র সমীক্ষায়

ভারতে এক শতকের মধ্যে সবচেয়ে কম বেতন বৃদ্ধি হবে ২০২০ সালে। দেশের প্রধান দুটি সেক্টর আবাসন ও পরিবহণ শিল্পে বেতন সবচেয়ে কম বাড়বে। সম্প্রতি এমনই একটি সমীক্ষা রিপোর্ট প্রকাশ করেছে বিখ্যাত কনসালটেন্সি ফার্ম এওন পিএলসি।
এওনের স্যালারি ইনক্রিজ সার্ভে ২০২০-র রিপোর্টে পূর্বাভাস, ২০২০ সালে ভারতের গড় বেতন বৃদ্ধি হবে ৯.১ শতাংশ যা, ২০০৯ সালের পর থেকে সর্বনিম্ন। ২০০৯ সালে বিভিন্ন সেক্টরে গড় বেতন বৃদ্ধির হার ছিল ৬.৬ শতাংশ।
বেশ কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন সেক্টরেই মন্দা চলছে। প্রতি মাসে গাড়ি শিল্পে লোকসানের চিত্র উঠে আসছে। সংশ্লিষ্ট সমীক্ষায় প্রকাশ, অটোমোবাইল সেক্টরেই সবচেয়ে কম বেতন বৃদ্ধি হবে ২০২০ সালে। সমীক্ষায় বলা হয়েছে, সবচেয়ে পড়তির দিকে ভারতের গাড়ি উৎপাদন শিল্প। এই ক্ষেত্রে ২০১৮ সালে বেতন বৃদ্ধির হার ছিল ১০.১ শতাংশ, ২০২০ সালে তা ৮.৩ শতাংশে এসে ঠেকেছে। এওন পিএলসির রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতে বিভিন্ন সংস্থার ২০১৯ সালে গড় বেতন বৃদ্ধি ছিল ৯.৩ শতাংশ। যা ২০১৮ সালের থেকে কম। আবার ২০২০ সালে এই বেতন বৃদ্ধি ২০ বেসিস পয়েন্টে নেমে ৯.১ শতাংশ হবে বলে সমীক্ষায় পূর্বাভাস। তবে মুষ্টিমেয় কয়েকটি সংস্থায় দু’অঙ্কের বেতন বৃদ্ধির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। ২০ টি সেক্টরের মধ্যে কেবল ই-কমার্স ক্ষেত্রে দু’ অঙ্কের বেতন বৃদ্ধি হবে বলে পূর্বাভাস।
যদিও এশিয়া মহাদেশের দেশগুলির তুলনায় ভারতের অবস্থা কিছুটা ভালো বলে জানাচ্ছে এওন পিএলসি। চিনের কোম্পানিগুলি কর্মীদের জন্য ৬.৩ শতাংশ পর্যন্ত বেতন বৃদ্ধি করতে পারবে, এমনটাই পূর্বাভাস সংশ্লিষ্ট সমীক্ষায়। ওই সমীক্ষা আরও জানাচ্ছে, চলতি বছরে ফিলিপিন্সে ৫.৮ শতাংশ, মালয়েশিয়ায় ৫.৩ শতাংশ, সিঙ্গাপুরে ৩.৮ শতাংশ, জাপানে ২.৪ শতাংশ পর্যন্ত কর্মীদের বেতন বাড়তে পারে।
প্রায় ২০ টি সেক্টরের এক হাজারের বেশি ফার্ম থেকে নেওয়া তথ্যের সমীক্ষা করেছে এওন পিএলসি। তারা জানাচ্ছে, এই ২০ টি সেক্টরের মধ্যে ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি বেতন বাড়াতে পারে স্টার্ট-আপ বিজনেস, ই- কমার্স এবং ফার্মাসিউটিক্যাল ক্ষেত্র। ই-কমার্স ও স্টার্ট আপ ফার্মে গড়ে ১০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। ফার্মা এবং তথ্য প্রযুক্তিতে চলতি বছরে বেতন বৃদ্ধি থাকবে যথাক্রমে ৯.৯ শতাংশ ও ৯.৬ শতাংশের আশেপাশে।

Comments
Loading...