সৎ মাকে অদ্ভুত নামে সম্বোধন সারার, এমনটাই নির্দেশ ছিল সইফ আলি খানের

সৎ মা বলতে আমাদের প্রত্যেকেরই মনে হয় সে কখনো আপন হতে পারেন না। এমনকি যতোই যাই হোক না কেন একটা দূরত্ব সেই থেকেই যায়। কিন্তু সইফের দ্বিতীয় পত্নী করিনা কাপুর খানের সাথে সারার সম্পর্ক একেবারেই আলাদা। মাত্র ১৭ বছর বয়েসে যখন সইফের দ্বিতীয় বিয়ে হয় তখন খানিক চিন্তায় পড়েছিলেন সারা এবং ইব্রাহিম। তাদের মনে হয়েছিল করিনার সাথে তাদের যোগসূত্র হয়তো মধুর হবে না। কারণ একেই তিনি সৎ মা উলটে এক জন বড় মাপের অভিনেতাও। কিন্তু বিয়ের পরে ভুল ধারণা ভাঙে সারার। সারার জানতে পারে করিনা খুবই সহজ সরল ভালো মনের মানুষ। এরপরেই ইব্রাহিম এবং সারার সাথে করিনার সুন্দর একটা বন্ডিংও দেখা যায়। কিন্তু নতুন মাকে কি বলে ডাকবেন সেই নিয়ে চিন্তায় পড়েন সারা।

সইফের সাথে আলোচনা করে সারা সিদ্ধান্ত নেন তিনি করিনাকে আন্টি বলে ডাকবেন। কিন্তু এই নাম খানিক অপছন্দ হয় সইফের। সে সটাং মুখের ওপর না বলে দেন। পরে অবশ্য সাইফ মেয়েকে সাফ জানান করিনাকে আন্টি বলে ডাকলে তিনি মেনে নেবেন না। তাই এই নাম বদল করে কোন অন্য নামে করিনাকে ডাকা যেতে পারে। কিন্তু তাতেও সমস্যার হাল বেরোয়নি। পরে অবশ্যে এই সমস্যা বাতলে দেন বলিউডের অন্যতম চিত্রপরিচালক করণ জোহর। তিনি জানান সারা করিনাকে ছোট মা বলে ডাক্তে পারে। কিন্তু তাও মেনে নেন নি সইফ। দীর্ঘ টাল বাহানার পর করিনাকে কে বলে সম্বোধন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে থেকেই করিনাকে কে নামেই ডাকেন সারা এবং ইব্রাহিম।

Comments
Loading...