করোনা আক্রান্ত মহিলা এইমসে জন্ম দিলেন করোনা মুক্ত সন্তানের, দেশে এই প্রথম

মা, বাবা দু’জনেই করোনা আক্রান্ত। কিন্তু সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানের মধ্যে মারণ ভাইরাসের চিহ্নমাত্র নেই। এমনই ঘটনার সাক্ষী হল দিল্লির এইমস। ভারতে এই প্রথম করোনা আক্রান্ত মা প্রসব করলেন করোনা মুক্ত সন্তান।
সম্প্রতি রাজধানীর এইমসে কর্মরত এক সিনিয়র রেসিডেন্ট ডাক্তারের করোনা ধরা পড়ে। সেই সময় তাঁর সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকেও পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায় তিনিও করোনা পজিটিভ। ২ এপ্রিল প্রবল আতঙ্কের মধ্যে দু’জনকেই এইমসে ভর্তি করিয়ে শুরু হয় চিকিৎসা। কিন্তু পরদিনই যে স্ত্রীয়ের ডেলিভারির তারিখ! কী হবে, তা নিয়েই যখন দুশ্চিন্তায় ডুবে রোগীর পরিবার, তখন নির্ধারিত দিনেই অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নেন এইমসের ডাক্তাররা।
এইমসের ১০ জন ডাক্তারের বিশেষ টিম আইসোলেশন ওয়ার্ডকে অপারেশন থিয়েটারে রুপান্তরিত করেন। সেখানেই চলে ম্যারাথন অস্ত্রোপচার। ৩ এপ্রিল ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন মা। জন্মের ১০ দিন পর সন্তানের করোনা পরীক্ষা করা হলে দেখা যায় রিপোর্ট নেগেটিভ। হাফ ছেড়ে বাঁচেন ডাক্তার থেকে রোগীর পরিবার।
ভারতে প্রথম এই ধরনের কেস, যা ভবিষ্যতে এমন পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাহায্য করবে। বলছেন ডাক্তাররা।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হুর নির্দেশিকা বলছে, করোনা আক্রান্ত মহিলারা স্তন্যপান করাতে পারবেন। তবে নিতে হবে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা ব্যবস্থা। সুযোগ থাকলে মায়েরা স্তন্যপান করানোর সময় মুখে মাস্ক পড়ে নিতে পারেন। বেবিকে ছোঁয়ার আগে এবং পরে অবশ্যই হাত ধুতে হবে ভালোকরে। নিয়ম করে জীবানুশূন্য করতে হবে আশপাশ। হুয়ের নির্দেশিকা অনুযায়ী, মা তাঁর সন্তানের কাছে যেতে পারবেন। তাঁকে কোলেও নিতে পারবেন। কিন্তু সবকিছুই করতে হবে সুরক্ষাবিধি মেনে।
চিকিৎসা বিজ্ঞান বলছে, স্তন্যপানের মধ্যে দিয়ে শিশুর মধ্যে সংক্রমণ ছড়ায় এমন কোনও তথ্য নেই। সেক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা ব্যবস্থা মেনে শিশুকে স্তন্যপান করাতে পারেন মায়েরা। যদিও এইমসের ডাক্তাররা কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ। চিকিৎসকেরা মায়ের সঙ্গে সদ্যোজাতের কিছুটা দূরত্ব বজায় রাখছেন। ডাক্তারদের মতে, সংক্রমণ রোখার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

Comments
Loading...