স্কুলছুট হ্রাস থেকে পড়ুয়াদের বই বিলি, ই-লার্নিং, শিক্ষার একাধিক মানদণ্ডে দেশের সেরা বাংলা

স্কুলছুট হ্রাস, পড়ুয়াদের পাঠ্যপুস্তক বিলি, করোনা পরিস্থিতিতে ডিজিট্যাল শিক্ষার বিপুল প্রসার, শিক্ষাক্ষেত্রে একাধিক প্যারামিটারে শীর্ষে পশ্চিমবঙ্গ। জানাল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা প্রথম এডুকেশন ফাউন্ডেশনের রিপোর্ট।

সারা দেশের ২৬ টি রাজ্যের ৫৮৪ জেলায় সমীক্ষা চালায় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি। মোট ৫২ হাজার ২২৭ টি গ্রামে সমীক্ষা চালিয়ে অ্যানুয়াল স্টেট অফ এডুকেশন রিপোর্ট (ASER) ২০২০ শীর্ষক রিপোর্টে তারা জানাচ্ছে, ২০১৮ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত সারা দেশে সবেচেয়ে বেশি স্কুলছুট কমেছে বাংলায়। সংশ্লিষ্ট সময়ের মধ্যে দেশে স্কুলছুটের পরিসংখ্যান ৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ৫.৫ শতাংশে পৌঁছেছে। সেখানে এ রাজ্যে স্কুলছুটের সংখ্যা ৩.৩ শতাংশ থেকে কমে ১.৫ শতাংশে গিয়ে ঠেকেছে। সংশ্লিষ্ট রিপোর্টে কর্ণাটক, তেলেঙ্গানা ও রাজস্থানে স্কুলছুটের পরিসংখ্যান যথাক্রমে ১১.৩ শতাংশ, ১৪ শতাংশ এবং ১৪.৯ শতাংশ।

স্কুল পড়ুয়াদের বিনামূল্যে পাঠ্যবই বিলিতেও দেশের শীর্ষে বাংলা। সমীক্ষায় প্রকাশ, ৯৯.৭ শতাংশ পড়ুয়ার কাছে পাঠ্যবই পৌঁছে দিতে সমর্থ হয়েছে সরকার।

উত্তর প্রদেশ, রাজস্থান, গুজরাত, অন্ধ্রের মতো বড় রাজ্যগুলিতে পাঠ্যপুস্তক পৌঁছে দেওয়ার পরিসংখ্যান যথাক্রমে ৭৯.৬ শতাংশ, ৬০.৪ শতাংশ, ৯৫ শতাংশ, ৩৪.৬ শতাংশ এবং ৮০.৮ শতাংশ।

করোনা পরিস্থিতিতে ডিজিটাল ও অন্যান্য মাধ্যমে পড়ুয়াদের শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে এ রাজ্যের উদ্যোগকেও স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে সমীক্ষায়। প্রতি বছরই শিক্ষাক্ষেত্রের পরিস্থিতি পর্যালোচনায় দেশজুড়ে সমীক্ষা চালায় প্রথম এডুকেশন ফাউন্ডেশন। বিভিন্ন মানদণ্ড ভাগ করে ASER রিপোর্ট প্রকাশ করে তারা।

Comments
Loading...