পর্যটন শিল্পকে আকর্ষণীয় করতে শুরু বেঙ্গল ট্যুরিজম ইন্টারন্যাশনাল ফেস্টিভ্যাল, চলবে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত

রাজ্যে পালা বদলের পর তৃণমূল সরকার রাজ্যে পর্যটন শিল্পের  উপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। রাজ্যে এবং ভিনরাজ্যে তো বটেই, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও এখন পশ্চিমবঙ্গের একটা আলাদা নাম হয়ে গিয়েছে। সব স্তরের পর্যটকদের কাছে রাজ্যের পর্যটন মানচিত্রকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য রাজ্য সরকার বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।
এবার পর্যটকদের মধ্যে ভ্রমণের খিদে আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিতে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। রাজ্যের পর্যটন দপ্তরের উদ্যোগে গত ৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে ‘বেঙ্গল ট্যুরিজম ইন্টারন্যাশনাল ফেস্টিভ্যাল’। চলবে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। দেশি ও বিদেশি পর্যটকদের কাছে বাংলার পর্যটন শিল্পকে জনপ্রিয় করে গড়ে তোলার জন্য এই অভিনব উদ্যোগ।
এই ফেস্টিভ্যাল উপলক্ষ্যে প্রতিটি জেলায় বসছে পর্যটন দপ্তরের শিবির। এই শিবিরগুলি থেকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র সম্পর্কে খুঁটিনাটি সমস্ত তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। কোন জেলায় কী কী পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে, কেমন করে সেই সব জায়গায় যাওয়া যাবে, থাকা-খাওয়ার কী ব্যবস্থা আছে, খরচ কেমন, ইত্যাদি সমস্ত তথ্য মিলছে ওই সব শিবির থেকে। ইতিমধ্যে, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, নদিয়া, ঝাড়গ্রাম ও পশ্চিম মেদিনীপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে এই শিবির। আগামী ৬ তারিখের মধ্যে বাকি জেলাগুলিতেও এই ধরনের শিবিরের আয়োজন করা হবে।
পর্যটন দপ্তরের এই শিবিরগুলিতে  সরকারির স্টলের পাশাপাশি বেশ কিছু বেসরকারি ভ্রমণ সংস্থা এবং প্রতিষ্ঠানের স্টলও থাকছে। অনেক বিদেশি ভ্রমণ সংস্থাও এসেছে এই উৎসবে। রোজই হাজির থাকছেন দপ্তরের শীর্ষ আধিকারিকেরা। বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রের প্রচুর অজানা তথ্য তুলে ধরার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে পর্যটন নিয়ে উৎসাহ প্রদান করাও এই ফেস্টিভ্যালের অন্যতম লক্ষ্য বলে জানান এক পর্যটন কর্তা। তিনি জানান, এই সব শিবিরে এসে পর্যটকেরা তাঁদের পছন্দের পর্যটনস্থল সম্পর্কে যেমন তথ্য পাচ্ছেন, তেমনি এখান থেকেই বুক করা যাচ্ছে সেই সমস্ত জায়গার হোটেল ও রিসর্ট। এই শিবিরগুলি থেকে পর্যটন দপ্তরের থাকার জায়গা বুকিং করলে পর্যটকেরা পেতে পারেন বুকিং-এর উপর ২০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। ভিড়ও হচ্ছে খুব।

Comments
Loading...