লেহ-তে সাংবাদিকদের ঘুষ দেওয়ার চেষ্টার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে, চরম বিড়ম্বনায় বিজেপি, পাল্টা মামলার হুমকি

সাংবাদিকদের ঘুষকাণ্ডে এবার নয়া মোড়। জম্মু-কাশ্মীরের লেহ-তে একদল সাংবাদিক বিজেপির বিরুদ্ধে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ করেছিলেন। চলতি সাধারণ নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে এবং বিজেপি প্রার্থীদের হয়ে প্রচারমূলক খবর করতে, তাদের হাতে একটি করে খাম তুলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ লেহ শহরের সাংবাদিকদের একাংশের। এবার সেই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে এল। যদিও সিসিটিভি ফুটেজের সত্যতা যাচাই করেনি thebengalstory।

গত সপ্তাহে পাহাড়ি শহর লেহ-এর হোটেলে একটি সাংবাদিক সম্মেলন ডেকেছিল বিজেপি। উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি রবিন্দর রায়না। প্রকাশ্যে আসা সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে রাজ্য বিজেপি সভাপতির ঠিক পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপির আরেক নেতা বিক্রম রানধাওয়া, সাংবাদিকদের হাতে একটি করে খাম তুলে দিচ্ছেন।

লেহ প্রেস ক্লাবের তরফে স্থানীয় নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে লিখিত অভিযোগপত্রে লেখা হয়েছে, বৃহস্পতিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি রবিন্দর রায়না একটি সাংবাদিক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা করেন। যদিও বিজেপির তরফে ঘুষের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। বিজেপির দাবি, টাকা ভরা খাম নয়, নির্মলা সীতারমণের আসন্ন কর্মসূচি উপলক্ষ্যে নিমন্ত্রণ পত্র বিলি করা হচ্ছিল। পাশাপাশি ঘুষের অভিযোগ তোলা সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও বিজেপি জানিয়েছে।

সেদিনের সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত সাংবাদিক রিনচেন আঙ্গমোর অভিযোগ, বিজেপির সিনিয়র নেতা বিক্রম রানধাওয়া নিজে অন্তত চারজন সাংবাদিকের হাতে টাকা ভরা খাম তুলে দেন। পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। খাম তুলে দেওয়ার পর, সেখানেই তাদের খাম খুলে দেখতে বারণ করে দিয়েছিলেন বিক্রম রানধাওয়া, বলে অভিযোগ ওই সাংবাদিকের।

রিনচেন আঙ্গমো বলছেন, ‘খামটি হাতে নেওয়ার পরই আমার সন্দেহ হয়। খুলে দেখি তাতে বেশ কয়েকটি ৫০০ টাকার নোট। আমি সঙ্গে সঙ্গে খামটি ফিরিয়ে দিতে যাই, কিন্তু বিজেপি নেতা খাম ফেরত নিতে অস্বীকার করেন’। রিনচেন বলেন, ‘আমি খামটি টেবিলের উপর রেখে দিয়ে চলে আসি’। প্রকাশ্যে যে সিসিটিভি ফুটেজ এসেছে, তাতেও দেখা যাচ্ছে একজন মহিলা একটি খাম টেবিলের উপর রাখছেন।

এদিকে বিজেপির এক নেতার দাবি, ‘আমরা ঘুষ দেওয়া-নেওয়ায় বিশ্বাস করি না। সাংবাদিকদের অত্যন্ত সম্মানের নজরে দেখি। বিজেপি কখনও এমন কোনও পন্থা অবলম্বন করে না, ভবিষ্যতেও করবে না’।

সাংবাদিকদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় থানায় এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সোমবার পঞ্চম দফায় ভোট হয় এই অঞ্চলে।

Comments
Loading...