স্টিলে ৩ দিন, কার্ডবোর্ডে ৩ ঘণ্টা বাঁচতে পারে করোনাভাইরাস! কতক্ষণ সক্রিয় থাকে পোশাকে, কত ডিগ্রি তাপমাত্রায় কাচবেন পোশাক?

করোনাভাইরাস আতঙ্কে লকডাউনের মধ্যে বাজার করে ফিরেই তড়িঘড়ি নিজের জামাকাপড় ধুয়ে ফেলছেন অনেকে। করোনা আক্রান্তের জামাকাপড় যাতে অন্যরা ব্যবহার না করেন সাবধান করা হচ্ছে। কিন্তু করোনাভাইরাস কি আপনার পোশাকের মধ্যে বেঁচে থাকতে পারে? যদি থাকতে পারে, তবে তার মেয়াদ কতক্ষণ?

বিশেষজ্ঞরাও দ্বিধান্বিত এ ব্যাপারে। তবে বেশিরভাগেরই মত, কাপড়ের মধ্যেও টিকে থাকতে পারে করোনা। কিন্তু কতক্ষণ পর্যন্ত কাপড়ের মধ্যে তা সক্রিয় থাকতে পারে, তা বলা যাচ্ছে না।

করোনা নিয়ে গবেষণায় উঠে এসেছে, বিভিন্ন সার্ফেসে এই ভাইরাসের সক্রিয় বা টিকে থাকার সময়সীমা কত। সেখানে দেখা গিয়েছে, স্টেনলেস স্টিলের মধ্যে ৩ দিন পর্যন্ত টিকে থাকতে পারে করোনা। প্লাস্টিকে সার্ফেসেও তাই। তবে কার্ডবোর্ডের উপর ৩ ঘন্টা, তামার উপর ৪ ঘন্টা এবং অ্যারোসল (বাতাস) এর মধ্যে করোনাভাইরাসের বেঁচে থাকার মেয়াদ ৩ ঘণ্টা। কিন্তু কাপড়ের মধ্যে করোনা কতক্ষণ সক্রিয় থাকতে পারে তা নিয়ে বিশেষ কিছু জানা যায়নি। প্লাস্টিকের মতো ‘পোরাস’ সার্ফেসের চেয়ে বেশিরভাগ ভাইরাস স্টিলের মতো ‘নন পোরাস’ সার্ফেসে বেশিক্ষণ টিকে থাকার ক্ষমতা রাখে। কাপড়, কার্ডবোর্ড এসব পোরাস সার্ফেস। এই পোরাস সার্ফেসের ভালো দিক হল, এরা ভাইরাসকে আটকে রাখতে পারে, তার সংক্রমণের শক্তি কমিয়ে দেয়।
আর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন জামাকাপড় পরা ভালো। যদিও জামাকাপড় নিয়ে কোনও সরকারি নির্দেশিকার খবর নেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) বলছে, সুতির কাপড় ৬০ ডিগ্রি থেকে ৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে মেশিন ওয়াশ করা উচিত। অনেক চিকিৎসক বলছেন, ডিটারজেন্ট ভাইরাস মারতে সক্ষম। তবে করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রে এমন কোনও তথ্য নেই। তবে আক্রান্তের পোশাক আলাদা করে রাখা, অন্যদের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন জামা কাপড় ব্যবহার করাই বাঞ্ছনীয়।
স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইটেও পরামর্শ, ‘জামাকাপড়, বেড ক্লথ, টাওয়েল ইত্যাদি পরিষ্কার রাখুন। অসুস্থের জামাকাপড় সাধারণ ডিটারজেন্ট দিয়ে ৬০ ডিগ্রি থেকে ৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে মেশিন ওয়াশ করুন। নোংরা জামাকাপড় থেকে সরাসরি স্পর্শ এড়িয়ে চলবেন। কাপড়ের মাস্ক পরলে প্রতিদিন ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

Comments
Loading...