অসহিষ্ণুতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠির জের, ৪৯ জন বিদ্বজ্জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের বিহারে

দেশজুড়ে গণপিটুনি ও ধর্মীয় হিংসার ঘটনা বন্ধ করতে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি পাঠিয়েছিলেন ৪৯ জন বিদ্বজ্জন। তাঁদের এই চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তিকে ছোট করে দেখানো হয়েছে, দেশের অখণ্ডতা নষ্ট হয়েছে এবং ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হেনেছে, এমনই অভিযোগ করে বিহারের এক আদালতে মামলা করলেন এক আইনজীবী।
শনিবার বিহারের এক নিম্ন আদালতে হলফনামা দাখিল করেন আইনজীবী সুধীরকুমার ওঝা। মামলার সাক্ষী হিসেবে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত, চিত্র পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী ও মধুর ভান্ডারকরের নাম উল্লেখ করেছেন ওই আইনজীবী। গত মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে চিত্র পরিচালক অপর্ণা সেন, আদুর গোপালকৃষ্ণণরা জানিয়েছিলেন, অসহিষ্ণুতা, গণপিটুনি বন্ধে হস্তক্ষেপ করুন প্রধানমন্ত্রী। সরকার বিরোধিতা করা মানেই দেশ-বিরোধিতা নয়। আর শনিবার জমা দেওয়া হলফনামায় আইনজীবী ওঝা এই ৪৯ জন বিদ্বজ্জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ এনেছেন। তাঁর অভিযোগ, ৪৯ জনের ওই চিঠি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থন করেছে, দেশের অখণ্ডতায় আঘাত করেছে।
৪৯ জন বিশিষ্টজনের সই করা চিঠির সমালোচনা করে গত শুক্রবার ৬১ জন বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রীকে পালটা চিঠি দেন। সেই চিঠিতে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত, পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী, মধুর ভান্ডারকররা জানান, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে প্রধানমন্ত্রী মোদীর ভাবমূর্তিতে কাদা ছেটানোর চেষ্টা করা হয়েছে। তাঁদেরকেই এই মামলার সাক্ষী হিসেবে উল্লেখ করেছেন আইনজীবী।
আগামী ৩ রা অগাস্ট রয়েছে এই মামলার শুনানি।

Comments
Loading...