ভুয়ো তথ্য এবং গুজব ছড়ানো বন্ধে ব্যবস্থা নিক হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষঃ কেন্দ্র

ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের মতো সোশ্যাল মিডিয়া বা মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ক্রমে বাড়ছে ভুয়ো খবর বা গুজব রটনার ঘটনা। এমন গুজবের জেরে গোটা দেশে গত কয়েক মাসে গণপ্রহারে একাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন বহু। মূলত, ছেলেধরা, কিডনি পাচারকারীরা এলাকায় ঘুরছে এমন নানা ধরনের গুজবই বেশি ঘুরছে হোয়াটসঅ্যাপে। আর এই ধরনের গুজব বা বিভ্রান্তিকর মেসেজের ফল হচ্ছে মারাত্মক। এলাকায় অচেনা কোনও মানুষ দেখলেই তাঁদের ছেলেধরা বা অপহরণকারী সন্দেহে মারধর করছেন এলাকাবাসী। সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে ত্রিপুরায়। সম্প্রতি মহারাষ্ট্রেও এমন গুজবের জেরে পাঁচ ব্যক্তির উপর চড়াও হয় বহু লোক।
দেশের নানা প্রান্তে এই ধরনের ঘটনা ক্রমে বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবার, কেন্দ্রের তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে ফেসবুকের আওতাধীন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে এক নোটিশ পাঠানো হয়েছে এই মর্মে। নোটিশে বলা হয়েছে, এ ধরনের গুজব বা ভুয়ো মেসেজ ছড়ানো বন্ধে অবিলম্বে দ্রুত পদক্ষেপ করুক কর্তৃপক্ষ। যারা এ ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে তাদের বিরুদ্ধেও কড়া ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। জবাবে হোয়াটস অ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের মাধ্যম ব্যবহার করে এই ধরনের গুজব ছড়ানোর ঘটনায় তারাও উদ্বিগ্ন। কীভাবে এই ঘটনা বন্ধ করা যায় তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে হোয়াটস অ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

Comments
Loading...