গ্রেফতার পি চিদম্বরম, বাড়িতে পাঁচিল টপকে ঢুকে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে গ্রেফতার করল সিবিআই

গ্রেফতার হলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম। বুধবার আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় অভিযুক্ত চিদম্বরমের জরুরি ভিত্তিতে শুনানির আবেদন গ্রহণ করেনি সুপ্রিম কোর্ট। তারপরই এদিন রাতে চিদম্বরমকে গ্রেফতার করে সিবিআই।
মঙ্গলবার দিল্লি হাইকোর্টে চিদম্বরমের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ হওয়ার পর তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করে ইডি। বুধবার সকালে চিদম্বরমের দক্ষিণ দিল্লির জোড়বাগে বাড়িতে গিয়ে তাঁর নাগাল পায়নি সিবিআই। এরপরেই গ্রেফতারে খাঁড়া ঝুলতে থাকে পি চিদম্বরমের ওপর।
বুধবার সকালে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন পি চিদম্বরমের আইনজীবী। শীর্ষ আদালত জানায়, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির বেঞ্চে আবেদন করুন চিদম্বরম। কিন্তু প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বুধবার এই আবেদন গ্রাহ্য করেননি। চিদম্বরমের আইনজীবী কপিল সিব্বল জরুরি ভিত্তিতে এই মামলার হলফনামা জমা দিতে গেলে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি রামানা জানান, বেশ কিছু ভুল রয়েছে হলফনামায়। শুক্রবার এই মামলার শুনানি হবে বলে জানা যায়।
এরই মধ্যে সন্ধ্যায় চিদম্বরম বিবৃতি দিয়ে জানান, যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তিনি প্রস্তুত। এরপর সিবিআইয়ের টিম চিদম্বরমের বাড়িতে হানা দেয়। বাড়ির পাঁচিল টপকে তাঁরা প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রীর বাড়িতে ঢুকে পড়েন। চিদম্বরমের বাড়ির সামনে টানা নাটকীয় পরিস্থিতির তৈরি হয়। ইডিও পৌঁছে যায় চিদম্বরমের অফিসে। দেশের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বাড়ির সামনে দীর্ঘ সময় ধরে নাটক চলতে থাকে। শেষ পর্যন্ত চিদম্বরমকে গ্রেফতার করে সিবিআই।
২০০৭ সালে চিদম্বরম যখন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী ছিলেন, সেই সময় ৩০৫ কোটি টাকার বিদেশি অনুদানে আইএনএক্স মিডিয়াকে ফরেন ইনভেস্টমেন্ট প্রোমোশন বোর্ড (এফআইপিবি) ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগে ওঠে। এই অভিযোগে ২০১৭ সালের ১৫ ই মে এফআইআর দায়ের করে সিবিআই। পরে মামলার তদন্তে নেমে ইডি জানতে পারে, এফআইপিবি ছাড়পত্রের জন্য পি চিদম্বরমের সঙ্গে দেখা করেন আইএনএক্স মিডিয়ার প্রধান পিটার মুখার্জি ও ইন্দ্রাণী মুখার্জি। পি চিদম্বরমের পুত্র কার্তি চিদম্বরম ও আইএনএক্স মিডিয়ার প্রধান পিটার মুখার্জি ও ইন্দ্রাণী মুখার্জির বিরুদ্ধে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনে সিবিআই।

Comments
Loading...