৫ দিন সিবিআই হেফাজতে চিদম্বরম

চিদম্বরমকে ৫ দিন সিবিআই হেফাজতে রাখার জন্য নির্দেশ দিল আদালত। বৃহস্পতিবার সিবিআই আদালতে টানা সওয়াল-জবাবের পর রায় দিতে দীর্ঘক্ষণ সময় বিচারক। শেষ পর্যন্ত সিবিআইয়ের দাবি মেনে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং কংগ্রেস নেতাকে সিবিআই হেফাজতেই পাঠানোর নির্দেশ দিল আদালত।
বুধবার রাতে দীর্ঘ নাটকের পর পি চিদম্বরমকে গ্রেফতার করে সিবিআই। গ্রেফতার করে দিল্লিতে সিবিআইয়ের হেড কোয়ার্টারে নিয়ে যাওয়া হয় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে। তাঁর ডাক্তারি পরীক্ষা করার পর সিবিআই দফতরের গেস্ট হাউস ফ্লোরের ‘লক-আপ স্যুট ৩’ এ নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। ২০১১ সালে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন সেন্ট্রাল দিল্লির এই নতুন সিবিআই দফতরের উদ্বোধনে প্রধান অতিথি ছিলেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চিদম্বরম।
সূত্রের খবর, তাঁর সঙ্গে আইএনএক্স মিডিয়ার হয়ে কে প্রথম যোগাযোগ করেন, ইন্দ্রাণী ও পিটার মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগের সময় কোনও সাংবাদিক ছিলেন কিনা, এমন বহু প্রশ্ন করা হয় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুর ৩ টে নাগাদ সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। চিদম্বরমের জন্য সওয়াল করার জন্য তিন আইনজীবী, অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি, কপিল সিব্বল ও বিবেক তনখা উপস্থিত ছিলেন। বিচারপত অজিত ঠাকুরের এজলাসে শুনানি হয় চিদম্বরম মামলার।
চিদম্বরমের জামিনের পক্ষে সওয়াল করেন তাঁর আইনজীবীরা। পাশাপাশি, সিবিআই জানায়, আইএনএক্স মামলায় চিদম্বরমে দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। তিনি তদন্তে সহযোগিতা করেননি। তাই তাঁকে হেফাজতে নিতে আবেদন জানায় সিবিআই।

Comments
Loading...